211 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

অনলাইনে দেশীয় মাছ বিক্রি করে লাখপতি শিউলি।

  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    12
    Shares

অনলাইন ডেস্ক:নারী উদ্যোক্তাদের জনপ্রিয় ফেসবুক প্লাটফর্ম উইম্যান অ্যান্ড কমার্স ফোরাম (উই) গ্রুপের কল্যাণে অনলাইনে দেশীয় মাছ বিক্রি করে লাখপতি হয়েছেনইশিনা গ্রোসারী এর স্বত্বাধিকারী নারী উদ্যোক্তা মাহবুব আরা শিউলি।

 

এফকমার্সের এই প্লাটফর্মটিতে সুদূর নাটোর চলন বিল থেকে দেশে হারিয়ে যাওয়া ঐহিত্যবাহী ছোটবড় সব ধরনের তাজা মাছ ধরে ঢাকায় এনে বিক্রি করে লাখপতি হন সংগ্রামী এই নারী উদ্যোক্তা।

 

ইশিনা গ্রোসারী সম্পূর্ণ অনলাইনভিত্তিক প্লাটফর্ম। এটি শিউলির এক স্বপ্নের নাম। এখানে তিনি দেশের হারিয়ে যাওয়া মাছগুলো সুলভ মূল্যে বিক্রি করে থাকেন।

 

ইশিনা গ্রোসারী মাছ সম্পর্কে শিউলি বিবার্তাকে বলেন, দেশে যে মাছগুলো প্রায় হারিয়ে যাওয়ার পথে সেগুলো আমার ইশিনা গ্রোসারীতে পাওয়া যাবে। আমি সরাসরি নাটোরের হালতি বিল, চলন বিল, পাটুল বিল থেকে তাজা মাছ ধরে আনছি। এখানে পাওয়া যায় না এমন কোন মাছ নাই। সবরকমের ছোট বড় মাছ যেমন, রুই কাতলা, মৃগেল, কালবাউস, চিতল, বোয়াল, শোল, বড়বাইন, আইড়, রিঠা, পাবদা, কাচকি, বাঁশপাতা, কাজুলি, বৌরাণী, গুড়কৈ, দেশীকৈ, কৈ, শিং, মাগুর, পাতাসি, চিংড়ি, টাকি, রাইকোর, ভাঙ্গন, কাইকলা, খলশে সবরকমের দেশী মাছের সমাহার রয়েছে ইশিনা গ্রোসারীতে।

 ইশিনা গ্রোসারী মাছের বিশেষত্ব সম্পর্কে শিউলি বলেন, আমি নিজে এই মাছগুলো সরাসরি বিল থেকে সংগ্রহ করে প্রসেসিং করে ঢাকায় নিয়ে আসি। আমরা সবাই জানি বিলের মিঠা পানির মাছ খেতে ভারি মজা এবং স্বাদে অতুলনীয়। সম্পূর্ণ ফরমালিনমুক্ত ভেজালমুক্ত। তাই যারা মাছ একবার কিনে খায় তারা দ্বিতীয়বার নিতে চায়।

 আপনার অনলাইনের পক্ষ থেকে ক্রেতাদের বিশেষ কোন সেবা দেন কিনা জানতে চাইলে শিউলি জানান, নগরের এই যান্ত্রিক জীবনে প্রায় প্রত্যেকজন মানুষই চাকরি, সংসার, ব্যবসা নিয়ে প্রচণ্ড রকমের ব্যস্ত সময় কাটান। বিলের সুস্বাদু ছোট মাছগুলো খেতে খুব ইচ্ছে হলেও শুধু কাটা আর ধোওয়ার সময়ের অভাবে অধিকাংশ মানুষই সেগুলো খেতে পারেন না। অনেকে আবার খাওয়াই ছেড়ে দিয়েছেন। শহুরে মানুষের এই অসুবিধার কথা ভেবেই আমারইশিনা গ্রোসারী পক্ষ থেকে মাছগুলো কেটে, ধুইয়ে পরিষ্কার করে রান্নার উপযোগী করেরেডি টু কুক প্রসেসে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছি।

 এছাড়া এই শীতের শুরুতে একদম টাটকা শাকসবজিরও অনেক অর্ডার আসছে। রেডি টু কুক প্রসেসে তরিতরকারিও প্যাক করে দেই আমার ইশিনা গ্রোসারীতে।

 আগ্রহীরা পছন্দের মাছ অর্ডার করতে যেতে হবেইশিনা গ্রোসারী অনলাইন শপের এই ঠিকানায়।

 শিউলি জানান, আমার উইতে এখন মাত্র সাড়ে তিন মাস চলছে।আরইশিনা গ্রোসারী পথচলার বয়স মাত্র দেড় মাসের। এরই মধ্যে আমি সাড়ে চারমণের মতো ছোটবড় মাছ, এক মণের মতো দেশি মুরগি, পনেরো কেজির মতো হাঁস, রাজহাঁস, দেশী হাঁস, মুরগীর ডিম প্রায় বিশ ডজ্জনের মতো অর্ডার কমপ্লিট করেছি।

 শিউলি তার এই লাখপতি হওয়ার পুরো কৃতিত্ব দিতে চান উই গ্রুপকে। বিশেষ করে রাজিব আহমেদ স্যারকে। তার ভাষ্য, হাজব্যান্ড মারা যাওয়ার পর দুই বছর শুধু দিশেহারা হয়ে খুঁজে বেরিয়েছি কি করব। কি করলে নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবো। এক ছোট বোনের সহায়তায় উইতে এড ই। এখানে শুধুমাত্র শেখা না, হাতেকলমে অর্জনও করা সম্ভব সেটার প্রমাণ শুধু আমি না আমার মতো আরো হাজারো নারীরা আছেন। উইয়ের জন্য বিশেষ করে রাজিব আহমেদ স্যারের পরামর্শ মোতাবেক লেখাপড়া করে ঘরে বসেই এফকমার্স বিজনেস নিয়ে আমি আজ লাখপতি। ধন্যবাদ রাজিব স্যার নিশা আপুকে। উনাদের তৈরি উইয়ের মতো এমন প্ল্যাটফর্ম আছে বলেই কোভিড প্যানডামিক সিচুয়েশনেও আমরা সাহসী নাবিকের মতো চলতে পেরেছি।

ইশিনা গ্রোসারী শিউলি সন্তানের মতো। সন্তানদের যেমন আদর যত্নে ভালোবাসায় বড় করছেন। ঠিক তেমনিইশিনা গ্রোসারী উদ্যোগটাও অনেক ত্যাগতিতীক্ষা অনেক সাধনা করে আজ পর্যন্ত নিয়ে এসেছেন। এর প্রতি রয়েছে তার সন্তানতুল্য ভালোবাসা। এই উদ্যোগটাকে নিয়ে অকে দূর যাওয়া পরিকল্পনা রয়েছে শিউলির।

 

সূত্র: বিবার্তা

পথিকনিউজ/অনামিকা

  • 12
    Shares
  • 12
    Shares