120 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে ছিল মানুষের বাঁধ ভাঙ্গা ভীড়।নজীরবিহীন যানজট

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রথম দফার লকডাউন শেষ হওয়ার আগে রোববার সকালে নিজের সরকারি বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আজ শেষ হচ্ছে প্রথম দফার লকডাউন, আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে শুরু হবে অপেক্ষাকৃত কঠোর ও সর্বাত্মক লকডাউন।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ভয়বহ আকার ধারণ করায় গত ৫ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া এক সপ্তাহের লকডাউন শেষ হওয়ার কথা রোববার।

এরপর ১৪ এপ্রিল থেকে সারাদেশে সার্বাত্মক লকডাউনে জরুরি সেবা ছাড়া সবকিছু বন্ধ করে দেওয়ার কথা।

কিন্তু প্রথম ও দ্বিতীয় দফা লকডাউনের মাঝের দুইদিন ১২ ও ১৩ এপ্রিল কিভাবে চলবে তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়।

কঠোর লক ডাউন মানুষের মনে আতংকের সৃষ্টি করেছে, ঘর বন্দী হওয়ার চিন্তায় মানুষ হুমড়ি খেয়ে মার্কেটে ভীড় করছে । ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখা যায় , রাস্তার এতটুকু ফাকা জায়গা নেই। সবাই যার যার প্রয়োজনীয় জিনিস  নিয়ে আসার জন্য মার্কেটে এমন ভীড় জমায় যা ।ঈদের ভীড়কে ও হার মানাবে। বিশেষ করে কাপড়ের দোকানগুলোতে ছিল উপচে পড়া ভীড়। গ্রামের মানুষ দলে দলে শহরে চলে আসায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়, ফলে অনেকেই পায়ে হেটে কেনাকাটা করছেন। আজ সকাল ১১ টা হতে কোনো রিকসাই শহরে যেতে রাজি হয়নি।

আজ ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে ছিল মানুষের বাঁধ ভাঙ্গা ভীড়।নজীরবিহীন যানজট

করোনা  সংক্রমণ মানুষের মাঝে  যতোটা না মৃত্যুর ভয় সৃষ্টি করছে , তার চেয়ে বেশি আতংক সৃষ্টি করছে কেনাকাটা করতে না পারার উদ্বেগ।