384 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    19
    Shares

অনেকটা তড়িঘড়ি করেই আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে আফগানিস্তানের ভবিষ্যৎ আগের চেয়ে আরও বেশি অনিশ্চয়তার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

আফগানিস্তানের নাগরিক ফাইজা ইব্রাহিমি। তিনি মনে করতে পারেন না যে, ঠিক কবে থেকে কবে পর্যন্ত দেশটিতে তালেবান শাসন করেছে। তিনি সে সময় খুব ছোট ছিলেন। বাবা-মায়ের মুখে এ নিয়ে বহু গল্প শুনেছেন ফাইজা। বর্তমানে পশ্চিমাঞ্চলীয় হেরাত শহরের একটি রেডিওর উপস্থাপিকা তিনি।

২০০১ সালে মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তানে অভিযান শুরু করলে তালেবানের পতন ঘটে। এদিকে,
গত ফেব্রুয়ারিতে তালেবানের সঙ্গে এক চুক্তি স্বাক্ষরের পর যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নেয়ার বিষয়ে সম্মতি জানায়।

গত চার মাসে দেশটি থেকে বিপুল সেনা সরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রায় এক তৃতীয়াংশ সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছে। ইতোমধ্যেই ১৩ হাজার সেনা থেকে কমে এখন আফগানিস্তানে ৮ হাজার ৬শ সেনা রয়েছে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ডের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেনজি জানিয়েছিলেন যে, চুক্তি অনুযায়ী তারা শর্ত পূরণ করেছেন।

তিনি বলেন, চুক্তি অনুযায়ী, সেনা সরিয়ে নেওয়ার কথা। আমরা আফগানিস্তান থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছি। তালেবানের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী, ২০২১ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও অন্য সব বিদেশি সেনা সরিয়ে নেয়া হবে।

টুইন টাওয়ারে হামলার ঘটনার পর আফগানিস্তানে মার্কিন অভিযানের প্রায় ২০ বছর পর এই চুক্তির আওতায় দেশটি থেকে মার্কিন ও অন্য বিদেশি সেনাদের সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

এদিকে, ২০২১ সালের মে মাসের মধ্যে সব সেনা আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করা হবে বলে নিশ্চয়তা দিয়েছেন জেনারেল কেনেথ।

  • 19
    Shares
  • 19
    Shares