680 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

আলোচনার শীর্ষে মেহারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ আহসান হাবিব খান সোহেল

  • 59
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    59
    Shares

হালিমা খানম, ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বাকী আছে আরও অনেক সময়। ইতোমধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে নির্বাচন কার্যক্রম। তাই সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণা শুরু করেছে। জেলার প্রতিটি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থীরা এখন মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। তবে তৎপরতা বেশি আওয়ামী লীগ প্রত্যাশীদের।ভোটাররা এখনই আলোচনা শুরু করেছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার ২ নং মেহেরী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে এলাকার ভোটারদের কাছে ও সবার কাছে একটি মুখ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে মোঃ আহসান হাবিব খান সোহেল। মোঃ আহসান হাবিব খান সোহেল, বর্তমান আহবায়ক ইউনিয়ন যুবলীগ, সাবেক সভাপতি মেহারী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ।বর্তমানে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী।

তিনি মেহারী ইউনিয়নে ৯ টি ওয়ার্ডের মধ্যে বৃহত্তর শিমরাইল ৪,৫,৬নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজের ব্যালটের মাধ্যমে গোপন ভোটে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী হিসেবে ৪ জনের মধ্যে তার নামের তালিকা সবার উপরে। মেহারী ইউনিয়নে সর্ব মোট ২৫ হাজারের উপরে ভোটার শিমরাইল গ্রামে নয় হাজার চার শত ভোটার।

শিমরাইল গ্রামে প্রায় ২৫ বছর যাবত চেয়ারম্যান থাকায় শিমরাইল গ্রামের ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য আওয়ামী লীগ থেকে একক প্রার্থী দেওয়া হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রী মহোদয়ের কাছে। অথিত জীবন থেকে প্রগতিশীল রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে তিনি এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, হত-দরিদ্র জনগণকে বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে সকলের প্রাণ ছুঁয়েছেন।

এরই মধ্যে নির্বাচন নিয়ে ইউনিয়নের অঞ্চলে গ্রামে চা দোকান থেকে শুরু করে প্রতিটি অলি-গলিতে চলছে নানা আলোচনা-পর্যালোচনা। শুরু হয়েছে সম্ভাব্য এই চেয়ারম্যান প্রার্থীর গণসংযোগ। এলাকায় এলাকায় দৌড়ঝাঁপ। সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছবিসহ ‘দোয়া প্রার্থী’ লেখা পোস্টার ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চলছে জোরেশোরে।

এলাকাবাসীরা বলেন, তিনি একজন প্রতিবাদী এবং পরোপকারী। তার মতো মিষ্টভাষী, সৎ ও ন্যায় পরায়ণ একজন ব্যক্তিকেও এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রয়োজন। এক প্রতিক্রিয়ায় মো: আকসান হাবিব খান সোহেল বলেন করোনাকালীন সময়ে জনপ্রতিনিধি না হয়েও এলাকার একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে অত্যন্ত গোপনে কর্মহীন ও অসহায়দের সাথে ছিলাম, আগামীতে এলাকার অবেহেলিত ও অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই। আগামী নির্বাচনে মেহারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হয়ে ইউনিয়ন বাসীর সেবা করতে চাই, এই মত প্রকাশ করেন তিনি ।

এ সময় তিনি আরো বলেন, এই ইউনিয়ন কে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করবো। আমি “ক্রীড়া মুখি তরুণ চায় – মাদক মুক্ত সমাজ চায়”আমি যুবকদের উন্নয়নে কাজ করতে চায় এবং এলাকায় আগামীতে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা, এলাকার মানুষের পাশে থাকা এবং এলাকার উন্নায়নে নিজেকে উৎসর্গ করব আমি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তুলার লক্ষ্যে জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নপূরণে মাদক, দূর্ণীতি, জুয়া, দারিদ্র্য মুক্ত ইউনিয়ন উপহার দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করছেন।

সরজমিনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ আহসান হাবিব খান সোহেলের বিষয়ে খোঁজ নিলে জানাযায়, দীর্ঘদিন থেকে অত্র এলাকায় সাধারন মানুষের স্বার্থে উন্নয়ন মূলক কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন।অনেক সময় নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী গরিব দুঃখী মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন। স্থানীয় তরুণ প্রজন্মের জনগণ তাকে সব সময় কাছে পাবার জন্য এমন একজন জনবান্ধব মোঃ আহসান হাবিব খান সোহেল কে ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।

চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ আহসান হাবিব খান বলেন,আমি বঙ্গবন্ধুর আর্দশে আদর্শিত হয়ে আওয়ামীলীগ করি। আর আওয়ামীলীগ হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে মাঠে কাজ করে যাচ্ছি। এলাকাবাসী চাইলে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হব।

  • 59
    Shares