572 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

আল্লামা ইমাম হাশেমী ও শেরে মিল্লাত নঈমীর মৃত্যুতে আহলে সুন্নাতের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত।

  • 785
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    785
    Shares

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামঃ-

ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা কাযী নুরুল ইসলাম হাশেমী (রহ.) ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস শেরে মিল্লাত আল্লামা মুফতি ওবায়দুল হক নঈমী (রহ.) দুইজন শুধু ইসলামি জ্ঞানের মহাপন্ডিতই ছিলেন না। তাঁরা উভয়ে দক্ষ সংগঠক, গণমানুষের প্রিয়ভাজন ও ভালোবাসার পাত্র ছিল। তাঁদের দু’জনের জানাজায় লাখো মানুষের উপস্থিতিই তার প্রমাণ। আল্লামা ইমাম হাশেমী (রহ.) ও শেরে মিল্লাত মুফতি নঈমী (রহ.) আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের আক্বিদার ক্ষেত্রে ছিলেন আপোষহীন। সুন্নী ওলামা-মাশায়েখ ও সাধারণের মাঝে ঐক্য সৃষ্টিতে তারা দু’জনই মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত কাজ করেগেছন। তাঁদের বহুমুখী প্রতিভা ও কর্মই তাঁদের বাঁচিয়ে রাখবে। আজ ০৯ জুলাই-২০ বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর মোমিন রোডস্থ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত চট্টগ্রাম কার্যালয়ে আয়োজিত স্মরণ সভা ও মিলাদ মাহফিলে বক্তারা এ কথাগুলো বলেন।

 

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল পীরে তরীকত আল্লামা সৈয়দ মছীহুদদৌলার সভাপতিত্বে বক্তরা আরো বলেন, “সুন্নি মুসলমানদের ঐক্য সুদৃঢ় করণে ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা হাশেমী (রহ.) ও শেরে মিল্লাত আল্লামা ওবায়দুল হক নঈমী (রহ.)’র অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে”। তারা দুইজন ছিলেন এশিয়া মহাদেশের সুন্নিয়তের দুই দিকপাল। যাদের যুগল পদচরণ সুন্নিয়তের ময়দানকে সমৃদ্ধ ও বিস্তৃত করেছে। এ দুই মহান দিকপালের স্বল্প সময়ের ব্যবধানে বিদায় সুন্নিয়তের আন্দোলনে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

 

স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত সমন্বয় কমিটির আহবায়ক মাওলানা এম.এ.মতিন, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর স্থায়ী কমিটির সদস্য মাওলানা স.উ.ম আবদুস সামাদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য পীরে ত্বরিকত আল্লামা গোলাফুর রহমান আশরফ শাহ্, প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা শাহ্ নূর মোহাম্মদ আল কাদেরী, অর্থ সম্পাদক এড. সৈয়দ মোখতার আহমদ, প্রকাশনা সচিব অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল, সদস্য মাওলানা রেজাউল করিম তালুকদার, মাওলানা সোহেল উদ্দিন আনসারী, আবু ইউসুফ চৌধুরী, অধ্যক্ষ ডি. আই জাহাঙ্গীর আলম, হাফেজ মাওলানা মনিরুদ্দীন, মোহাম্মদ ইছমাইল, মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন, আরাফাত হোসেন, মিজানুল ইসলাম প্রসুখ। উক্ত স্মরণ সভায় আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতসহ অঙ্গ সংগঠন সমূহকে জেলা, উপজেলা, থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ে স্মরণ সভা ও মিলাদ মাহফিল আয়োজন করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

  • 785
    Shares
  • 785
    Shares