100 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

আশুগঞ্জে পলাশ এগ্রো ইরিগেশন সেচ প্রকল্পের চলতি বছরের সেচের পানি অবমুক্ত করা হয়েছে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাবুল সিকদারঃবিএসিডিসি‘র উদ্যোগে জেলার আশুগঞ্জ-পলাশ এগ্রো ইরিগেশন সেচ প্রকল্পের চলতি বছরের সেচের পানি অবমুক্ত করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ পাওয়ার ষ্টেশনের অভ্যন্তরে ইনটেক প্রধান স্লুইচ গেইট খোলে দিয়ে এ পানি অবমুক্ত করা হয়। বিএডিসি এর পুর্বাঞ্চলের সেচ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আব্দুল করিম প্রধান অতিথি হিসাবে পানি অবমুক্ত উদ্বোধন করেন। আশুগঞ্জ-পলাশ এগ্রো ইরিগেশন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী মো. ওবায়েদ হোসেন এর সভাপতিত্বে পানি অবমুক্তকরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হানিফ মুন্সি, আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অরবিন্দ বিশ্বাস বাপ্পি,সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল হক মৃদুল,আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতা এ্যাড:কামরুজ্জামান আনসারী,উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গীর আলম,সহকারি প্রকৌশলী খলিলুর রহমান,রুবায়েদ ফয়সাল প্রমুখ।পরে প্রকল্পের সমৃদ্বি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। আশুগঞ্জ-পলাশ এগ্রো ইরিগেশন সেচ প্রকল্পের কর্তৃপক্ষ জানান,আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বর্জ্য পানি ব্যবহার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার তিনটি উপজেলা ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদর,নবীনগর,আশুগঞ্জ,সরাইল,চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে এই প্রকল্পের অধিনে ৩৬ হাজার ১শত ২৫ হেক্টর জমিতে সল্প খরচে সেচ সুবিধা প্রদান করা হবে।এই প্রকল্পের আওতায় প্রায় ত্রিশ হাজার কৃষকের জন্য ৬৫ হাজার মেট্রিক টন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছরের তুলনায় চলতি বছর সেচের আওতা ও উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রাও বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রকল্প কর্তৃপক্ষ।