380 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ঈদের পর থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় শিথিল হচ্ছে লকডাউন

ঈদের পর থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় শিথিল হচ্ছে লকডাউন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আগামী ২৭ মে থেকেই ব্যবসায়িক কার্যক্রম পুরোদমে চালু হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম পর্যটন ও বাণিজ্যিক শহর দুবাইয়ে। সোমবার দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স এবং দুর্যোগ ও বিপর্যয় ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সুপ্রিম কমিটির চেয়ারম্যান শেখ হামদান বিন মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে ঘোষণায় বলা হয়েছে, বুধবার থেকে ভোর ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত দুবাইয়ের সবধরনের ব্যবসায়িক কার্যক্রম চলবে। এই সময়ের মধ্যে চলাচলেও আর কোনও নিষেধাজ্ঞা থাকবে না।

সম্প্রতি বেশ কিছু প্রতিবেদনে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনাভাইরাস সংকট শিগগিরই কাটছে না। ফলে একে সঙ্গে রেখেই জীবনযাপনের অভ্যাস গড়ে তোলা প্রয়োজন। এসব মতামত মাথায় রেখেই দুবাইয়ের সব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কমিটি।

তবে এখনও ফেসমাস্ক পরা, অন্তত দুই মিটারের শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা, নিয়মিত সাবান-হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে ২০ সেকেন্ডের বেশি সময় ধরে হাত ধোয়ার মতো সতর্কতাগুলো অনুসরণ করতে হবে বলেও জানিয়েছে তারা।

 

এছাড়া , করোনাভাইরাস মহামারির কারণে জারি করা লকডাউন আরও শিথিল করছে সৌদি আরব। আগামী ৩১ মে থেকে ২০ জুন পর্যন্ত মক্কার বাইরের সব মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি।

মঙ্গলবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) জানিয়েছে, আগামী বৃহস্পতিবার থেকে মক্কা ছাড়া দেশের বাকি সব এলাকায় বিকেল ৩টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত জারি করা কারফিউতেও পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

সরকারি-বেসরকারি উভয় খাতের কর্মীদেরই কাজে ফেরার অনুমতি দেয়া হবে। এছাড়া অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু এবং দেশের মধ্যে ভ্রমণের ব্যাপারেও নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে গত ২৩ মার্চ থেকে ২১ দিন দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেন সৌদি বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ। পরে এ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরও বাড়ানো হয়।

তবে অর্থনৈতিক চাপ কমাতে এপ্রিলের শেষের দিকে লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নেয় সৌদি সরকার। পবিত্র রমজান মাসে শপিংমলসহ সবধরনের পাইকারি ও খুচরা পণ্য বিক্রয়কেন্দ্রগুলো সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা রাখার অনুমতি দেয় প্রশাসন।

নির্দেশনায় বলা যায়, শপিংমল, দোকানে কিংবা সড়কে কোনো অবস্থাতেই পাঁচজনের বেশি এক জায়গায় জড়ো হওয়া যাবে না। এই আইন অমান্যকারীর জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে জরিমানার বিধান রেখেছে দেশটি।