297 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

কন্ঠ-আবৃত্তি-যন্ত্র-নৃত্য-নাট্য ও চিত্র শিল্পিগোষ্ঠী সরকারি অনুদান পেলেও বঞ্চিত কিন্ডারগার্টেন শিক্ষকরা।

  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    24
    Shares

সায়্যিদ আহমাদ রাফি: করোনা সংকটকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৯০ জন কন্ঠ-আবৃত্তি-যন্ত্র-নৃত্য-নাট্য-চিত্র ও পুতুল নাচের শিল্পি, কবি-লেখক-সংস্কৃতি সংগঠক এবং নন-এমপিও শিক্ষকগন ৫০০০ টাকা করে সরকারি অনুদান পেলেও জেলার শতশত কিন্ডারগার্টেনের হাজার হাজার শিক্ষকরা যারা আপনার আমার কোমলমতি সোনামণিদের শিক্ষাদেয় তাদের নিয়ে সরকারের কোনো চিন্তা ও মাথাব্যাথা নেই। শিক্ষার্থীদের বেতনে পরিচালিত এই কিন্ডারগার্টেন গুলোতে করোনার শুরু থেকে বেতন নেওয়া বন্ধ থাকায় শিক্ষকদের বেতন দেওয়া যাচ্ছে না। অর্থ সংকটে পরে অনেক শিক্ষক পেশা ত্যাগ করতেও বাধ্য হচ্ছে।

ইতিহাস বলে, যুগে যুগে অতি অত্যাচারী শাসকও নত শিরে গুরুর সামনে দাঁড়িয়েছেন। গুরুকে অসম্মানের ধৃষ্টতা কেউ দেখাননি। চাণক্য শ্লোকে আছে, ‘এক অক্ষরদাতা গুরুকেও গুরু বলিয়া মান্য করিবে। এক অক্ষরদাতা গুরুকে যে গুরু বলিয়া মান্য করে না, সে শতবার কুকুরের যোনীতে জন্মগ্রহণ করে চণ্ডালত্ব লাভ করিবে। শিক্ষকের মর্যাদা দিতে গিয়ে ইমাম আবু হানিফা (রঃ) শিক্ষকদয়ের বাড়ির দিকে পা মেলে বসতেন না।

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে শিক্ষকের মর্যাদার একটি হাদিস বর্ণনা করেন, তোমরা জ্ঞান অর্জন কর এবং জ্ঞান অর্জনের জন্য আদব শিষ্টাচার শিখ। তাঁকে সম্মান কর; যার থেকে জ্ঞান অর্জন কর। সুতরাং যার থেকে জ্ঞান অর্জন করা হয় তিনিই হলেন শিক্ষক। শিক্ষকের সুমহান মর্যাদা কথা গুরুত্বসহকারে ঘোষণা করেছে ইসলাম। রাসুল (সা.) শিক্ষা, শিক্ষা উপকরণ, শিক্ষক ও শিক্ষার ব্যাপকীকরণে সদা সচেষ্ট ছিলেন।

তাই তো প্রিয় নবী (সা.) বদরের যুদ্ধবন্দিদের মুক্তির জন্য মদিনার শিশুদের শিক্ষা দেওয়ার চুক্তি করেছিলেন। যার মাধ্যমে তিনি বন্দিদের মুক্তির ব্যবস্থা করেছিলেন, যা বিশ্ব ইতিহাসে বিরল। শিক্ষকের মর্যাদা প্রসঙ্গে আল্লাহপাক ঘোষণা করেছেন, ‘যারা জানে এবং যারা জানে না তারা কি সমান হতে পারে? উল্লেখ গতকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৯০ জন কন্ঠ-আবৃত্তি-যন্ত্র-নৃত্য-নাট্য-চিত্র ও পুতুল নাচের শিল্পি, কবি-লেখক-সংস্কৃতি সংগঠক-কে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ৫০০০ টাকা করে সরকারি অনুদান প্রদান করা হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিভিন্ন কিন্ডারগার্টেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মালিক ও শিক্ষকগনের দাবি বর্তমান সরকারের শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রী তাদের বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে অতিদ্রুত গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করবেন।

  • 24
    Shares
  • 24
    Shares