568 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

কুয়ালালামপুর করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট   বিক্রিয়! আটক  দুই বাংলাদেশি  

  • 73
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    73
    Shares
 এম এ  আবির , মালয়েশিয়া : বিদেশি নাগরিকদের সবচেয়ে বেশি বসবাস করছে কুয়ালালামপুর। আর সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি ব্যবসায়ী হচ্ছে  বুকিং বিনতাং। সেই বিদেশি নাগরিকদের পুজি করে  করোনার জাল নেগেটিভ  সার্টিফিকেট  বিক্রির দায়ে মালয়েশিয়ায় দুই বাংলাদেশি কে  গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ। শুক্রবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাজধানী কুয়ালালামপুর,  বুকিত বিনতাং,   জালান আলোর দুটি বাংলাদেশি  দোকানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ ১৯৮৮ এর ২২ (ডি), দণ্ডবিধির ৪৬৮ ও ৪৭১ এবং ইমিগ্রেশন আইনের ৬ (১) (সি) এর অধীনে তদন্ত চলছে।

কুয়ালালামপুরের পুলিশ প্রধান দাতুক মাজলান লাজিম সাংবাদিকদের জানান, গত দুই সপ্তাহ ধরে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বিদেশি অভিবাসীদের কাছে ৫০ রিঙ্গিতে যা বাংলাদেশে সমপরিমাণ ১ হাজার টাকার  বিনিময়ে করোনাভাইরাসের নেগেটিভ রিপোর্ট (জাল সনদ) বিক্রি করে আসছে এই সিন্ডিকেট গ্রুপ।

তিনি বলেন, এ গ্রুপের সদস্যরা ১২ হাজার টাকায় দোকান ভাড়া নিয়ে ও স্থানীয় দুইজন লোকাল  নাগরিককে চাকরি দিয়ে কাউন্টারে রেখে প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত এই অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। এবং করোনা পজেটিভ রোগী  কোয়ারেন্টাইন না থেকে জাল নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে ঘুড়ে বেড়াচ্ছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে কাজ করছে  সবখানে। যা থেকে দূত আক্রান্ত হচ্ছে  সংস্পর্শে আসা মানুষ গুলো।
অভিযানে পরিচালনা করে   একটি জাল কোভিড -১৯ স্ক্রিনিং পরীক্ষার রিপোর্ট, লেটারহেড এবং এক হাজার ৩৩১ মালয় রিঙ্গিত (২৬ হাজার ৫০০ টাকা) উদ্ধার করে পুলিশ। এছাড়া দুটি ল্যাপটপ, তিনটি প্রিন্টার, দুটি ল্যামিনেটর মেশিন এবং কোভিড -১৯ স্ক্রিনিং পরীক্ষার ফলাফলের দুটি শিট উদ্ধার করা হয়েছে।


পুলিশ প্রধান বলেন, কোভিড-১৯ স্ক্রিনিং পরীক্ষার ফলাফলের রিপোর্ট নকল করার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে এবং অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।এবং সিন্ডিকেটের বাকী সদস্যদের আটক করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

জুনায়েদ /পথিক নিউজ

  • 73
    Shares
  • 73
    Shares