200 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

কল্যাণপুরে টিকাদান কেন্দ্রে ৬`শ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে টিকা প্রধান এম.এম কামাল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ জাবেদ হোসেনঃ কল্যাণপুরে টিকাদান কেন্দ্রে ৬`শ মানুষ কে স্বাস্থ্য বিধি মেনে টিকা প্রধান এম.এম কামাল।। চাঁদপুর সদর উপজেলার ৩নং কল্যাণপুরে করোনার টিকা নিতে কেন্দ্রে উপচে পড়েছে মানুষ। সেখানে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে দেখা গেছে। শনিবার  সকাল ৯টা থেকে কল্যাণপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স  কেন্দ্রে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। তবে সেখানে সকাল ৭টা থেকে টিকা নিতে আসে মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে।

সকাল ১১ টায গিয়ে দেখা যায়, কক্ষে টিকা দেওয়া হচ্ছে। কক্ষ থেকে শুরু হওয়া লাইন হাসপাতালে  প্রাঙ্গণে মাঠ এঁকেবেঁকে একেবারে প্রধান ফটকের বাইরে চলে গেছে। বাইরে ও সামনের জিটিরোড সড়কেও ১`শ থেকে দেড় শ মানুষের দীর্ঘ লাইন। সব মিলিয়ে কল্যাণপুরে টিকাদান কেন্দ্রে ৬`শ মানুষ  টিকা নিতে এই কেন্দ্রে এসেছেন।
লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা অন্তত ২০  জনের সঙ্গে কথা হলে তাঁদের মধ্যে সাতজন জানান, তাঁরা টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন তিন দিন আগে। কিন্তু কোনো এসএমএস পাননি। তারপরও এসেছেন টিকা নিতে।

তিনজন জানালেন, তাঁরা এসএমএস পাওয়ার পর আজ টিকা নিতে এসেছেন। টিকাদান কক্ষের সামনে কোন জটলা দেখা যায়নি। টিকা নিতে আসা কল্যাণপুর ১নং ওয়ার্ড থেকে আসা মিজানুর রহমান  জানান  ‘সকাল সাড়ে ১১ টায় এসেছিলাম। সাথে সাথে টিকা দিতে পারলাম। সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত দীর্ঘ লাইনে ছিলেন। তিনটি বুথে নারীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। টিকা নিতে আসা ব্যক্তিদের সবার মুখেই মাস্ক ছিল।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাখাওয়াত হোসেন রনি পাটোয়ারী, আব্দুল লতিফ, আঃ মজিদ তালুকদার, আঃ লতিফ, মোসাঃ সামছুন নাহার, সঞ্জীব দে, আলহাজ্ব মাওলানা আজাদ হোসেন, তাছলিমা জাহান, মোঃ কামাল তালুকদার, মোঃ হাবিবুর রহমান, মোঃ খোরশেদ খান, এম.এম কামাল,  মোঃ জসিম উদ্দিন।

কল্যাণপুর ১নং ওয়ার্ড স্বাস্থ্য সহকারী আমেনা খাতুন , পরিবার কল্যাণ সহকারী  রুমা আক্তার, আয়শা বেগম, পরিবার সহকারী জান্নাত আক্তার, স্বাস্থ্য সহকারী সেলিনা, ফরিদা আক্তার, সুপার ভাইজার ৩জন, টিকাদান কর্মী ৬জন, সেচ্ছাসেবক ৯ জন।

এসময় কল্যাণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাখাওয়াত হোসেন রনি পাটোয়ারী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষা মন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ দীপু মনি এমপি কে ধন্যবাদ জানান এবং সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, আমাদের সরকার জনগণের সরকার  জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের কথা চিন্তা করে সারা দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে এবং চাঁদপুর ৩-আসনের উন্নয়নের রুপকার শিক্ষা মন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ দীপু মনি এমপি তার নির্বাচনী এলাকায়  এ টিকার ব্যবস্থা করেছেন আমরা তাহাদের সুস্থতা ও দীর্ঘ আয়ো কামনা করছি।

এ বিষয় জানতে চাইলে কল্যাণপুর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক সঞ্জীব দে বলেন, সকাল নয়টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত টিকা দেওয়া যাবে। সবাই সকাল নয়টার মধ্যে এসে ভিড় করেন। যে কারণে মানুষের কিছুটা ভিড় হয়েছে। মানুষের মধ্যে ধারণা, পরে এলে মনে হয় টিকা পাবেন না। আসলেই বিষয়টি সে রকম না। টিকার যথেষ্ট মজুত আছে। মানুষ টিকা নিতে এখন প্রবল আগ্রহী। কমিটির দু’একজন ব্যতিত পুরো টিম টানা কাজ করে যাচ্ছে।

উল্লেখ্য কল্যাণপুরে গত ২৪ ঘন্টা  সময় করোনা আক্রান্ত হয়ে কয়েক জন মারা গেছেন। এসময় টিকা দান কেন্দ্রে সহযোগিতা করেছেন, ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ জামাল গাজী, সাধারণ সম্পাদক বিএম বাবলু,  ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক এসএম সুমন, মোঃ জসিম উদ্দিন বেপারী, ৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মোঃ মিঠু সরকার।

উল্লেখ্য করো কমিটির মধ্যে উপস্থিত হননাই, দাসদী উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম, দাসাদী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাসলিমা জাহান।