707 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

কি করে? এতো প্রেম কি করে জানতে তুমি!

সংগ্রহীত ছবি

  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    19
    Shares
হঠাৎ করে বলতে বুকে আয়তো খুব অশান্তি লাগছে,
কখনো বলতে টিপ টা কপাল থেকে সরা দেখিনি একটু চুমু একে দেই।
কাজ থেকে ফিরে এসে চেচিয়ে ডাকতে, মাধুবী মাধুবী! একটু পাশে এসে বসতো!  বলতে,  তুকে দেখলেই আমার সব ক্লান্তি মিটে যায়।
জ্বরের ছুতোয় বলতে তুমি, কপালে ছুঁয়ে দিবি আমার?
জানিস মাধুবী? তুর স্পর্শে  আমার সব রোগ মিলিয়ে যায়।
মাঝ রাত্রিরে ঘুম ভাঙিয়ে বলতে
চল দু-জন মিলে গল্প করি।
ঘুমের ঘুরে বলতাম আহা -এমন খামখেয়ালি করোনা,
 ঘুম পাচ্ছে-ঘুম পাচ্ছে ঘুমাতে দাও।
খিলখিল করে হেসে বলতে আহা উঠতো!
 শুন মাধুবী,
মাঝ রাত্রিরে গল্প করলে  মনের সব অশান্তি একে অপরকে অনায়াসে বলা যায়।মনের কোনে তিল পরিমাণ  যন্ত্রণা গুলো, সিউলি ফুলের মত ঝরে যায়।
শেষ রাত্রিরে, বুকে জাপটে ধরে কানের কাছে মুখ গুজে দিয়ে  বলতে,
খুব ভালোবাসি
তুকে ভীষণ  আগলে রাখতে ইচ্ছে হয়।
তুকে কাছ থেকে আরো কাছে পেতে ইচ্ছে হয়।
যতই দেখি তুকে চোখের তৃষ্ণা মিটে না, এই  বলেই চোখ- মুখে চুমু খেতে।
আধ ঘুমা  চোখে বলতাম
একি বলছো তুমি!
কি করছো তুমি?
 কেমন করে পারো তুমি?
কেমন করে এতো প্রেম জানো  তুমি?
 কেমন করে এতো  ভালোবাসতে পারো তুমি?
 বলোতো!  কেমন করে?
চুপ থাকতে তুমি
শুধু বলতে দিন গুলো  যাতে ফুরিয়ে না যায়।
বলেছিলে সেদিন – মাধুবী আজ কাল বুকের ব্যথা টা বড্ড বেড়েছে…
বুঝতে পারিনি সেদিন
 মরণ ব্যাদি রোগ তোমায় পেয়ে বসেছিলো।
এক পা দু পা করে আমার প্রেম ফুরুচ্ছিলো
বুঝতে পারি নি সেদিন আমি
বুঝতে পারি নি!
আমার শত স্পর্শে তেও তোমার সেদিন রোগ সারেনি,
শেষ বারের মতো বুকে মাথা রেখে, সেই যে শুয়েছিলে আর জাগো নি!
আজ তিনশো পঁয়ষট্টি দিন ধরে আমায় কেউ মাঝ রাত্রিরে ঘুম ভাঙায় না।
তিনশো পঁয়ষট্টি দিন ধরে রাতে আমার ঘুমি পায় না!
কত দিন হলো…..
বেলায় অবেলায় সেই চেনা সুর মাধুবী মাধুবী কানে এসে বাজে না,
কপালের টিপ টা সরিয়ে কেউ চুমু খেতে চায় না,
শেষ রাত্রিরে কেউ বলে না খুব ভালোবাসি তুকে,
 কত দিন হলো…..!
কত দিন হলো
আমার তাকে বলাই হয় না,
এতো প্রেম কি করে জানো তুমি?
কি করে জানো বলতো?
কবিঃ
তামান্না
  • 19
    Shares
  • 19
    Shares