404 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

কুমিল্লার তিতাসে ফিল্মি স্টাইলে দুই যুবককে অপহরণের পর উদ্ধার ঃ আটক ১

  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares

হালিম সৈকত : অপহরণঃ আটক ১  কুমিল্লার তিতাসে অপহরণের ৮ ঘন্টা  পর দুই যুবককে হাত পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করেছে  তিতাস থানা পুলিশ।

৩০ মে রাত আড়াইটায় কলাকান্দি ইউনিয়নের মাছিমপুর -কদমতলী ব্রিজের নিচ থেকে উদ্ধার করেছে টহলরত পুলিশ।

উদ্ধার হওয়া দুই যুবক হলো মাছিমপুর গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে শাওন (২৬)   ও আরমানের ছেলে অপু (২৮)।

উদ্ধারের পর দুই যুবক  এখন তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে।

এই বিষয়ে অপহৃত অপু ও শাওন জানান, সন্ধ্যা ৭ টার দিকে আমরা হালিম খেতে আসি স্কুল মাঠের কোনায়। ঠিক সেই মুহূর্তে একটি কালো রংয়ের সুপার জেল গাড়ি থেকে ৬-৭ জন লোক পিস্তল ঠেকিয়ে চোখ, হাত, পা বেঁধে ঢাকার দিকে নিয়ে যায়। পথ্যিমধ্যে একজনের সাথে কথা হয় অপহরণকারীদের। মোবাইল নম্বরের শেষ তিনটি ডিজিট দেখতে পাই,  সেটা হলো ১০৫। অপহরণকারীরা সাংকেতিক নাম ব্যবহার করেছে। একজনের নাম ফোর জি, থ্রি জি, ৪২০ ইত্যাদি।  পরে যে বা যারা অপহরণটি করিয়েছে তার ফোন পাওয়ার পর অপহরণকারী নেতা বলে, ডিসিশন চেঞ্জ। পরে ফাঁকা  গুলি করে  ব্রিজের নিচে ফেলে দ্রুত বেগে পালিয়ে যায়। জানা যায়, এর আগে মেয়ে সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মুকবুল ও অপুর পরিবারের সাথে পূর্ব বিরোধ   রয়েছে।

এর আগে মাছিমপুর গ্রামের সুবল মিয়ার ছেলে মুকবুলকে (৪০) আটক করে তিতাস থানার চৌকষ অফিসার এসআই বিল্লাল হোসেন।

এই বিষয়ে  এসআই বিল্লাল হোসেন বলেন, মুকবুলকে আটকের দুই ঘন্টা পর অপু ও শাওনকে হাত, পা বাঁধা অবস্থায় কদমতলী ব্রিজের নিচ থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তিতাস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। তবে এখনও কোন মামলা হয়নি।    বিষয়টি  নিয়ে তোলপাড় চলছে পুরো এলাকায়।

 

 

  • 9
    Shares
  • 9
    Shares