88 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

‘কোভিশিল্ড’ টিকায় আজীবন সুরক্ষা: গবেষণা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি ‘কোভিশিল্ড’ টিকা নিলে আজীবন করোনা সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পাওয়া যেতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও সুইজারল্যান্ডের গবেষকরা।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) বিজ্ঞান জার্নাল নেচারে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে এ তথ্য উঠে এসেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের একটি প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

গবেষণায় বলা হয়, এই টিকা অ্যান্টিবডি তৈরি ছাড়াও ‘সার্চ-অ্যান্ড-ডেসট্রয় টি-সেল’কে প্রস্তুত করে। যাকে শরীরের মধ্যে টি-সেলের ‘প্রশিক্ষণ শিবির’ বলা যেতে পারে। ফলে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেও সমানভাবে করবে এই টিকা।

গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, কোভিশিল্ড টিকা দিলে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হবে তা শেষ হওয়ার অনেক পরেও শরীরে এই গুরুত্বপূর্ণ কোষগুলো তৈরি হতে থাকবে। ফলে সম্ভবত এটি আজীবন অব্যাহত থাকবে।

সুইজারল্যান্ডের গবেষক বুখার্ড লুডউইগ জানান, ‘এই সেলুলার প্রশিক্ষণ শিবিরগুলো থেকে যে টি-কোষগুলো আসে তাদের মধ্যে খুব উচ্চ স্তরের ফিটনেস থাকছে। ফলে ভবিষ্যতে মহামারি এই ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে এটিই রক্ষা করবে।’

তিনি বলেন ‘এক্ষেত্রে ভাইরাসই আমাদের সবচেয়ে বড় শিক্ষক বলা যায়। দেহের ‘টি-সেল’ রেসপন্স কীভাবে আরও ভাল করা যায়, সেই নিয়ে আরও প্রচেষ্টার শিক্ষাই দিল করোনা।’

এর আগে এক গবেষণায় দেখা গেছে, ফাইজার এবং মডার্নার মতো এমআরএনএ প্রযুক্তিতে তৈরি টিকাগুলোর চেয়েও ‘টি-কোষ’ তৈরিতে অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি এই কোভিড টিকা ​আরও বেশি কার্যকর।

ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও ওষুধ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের এই টিকাটি উৎপাদন করছে। এই টিকাটি ‘কোভিশিল্ড’ নামে ​পরিচিত। বাংলাদেশে প্রথম থেকেই এই টিকা দেয়া হয়েছে এবং বর্তমানেও এই টিকা দেয়া হচ্ছে।

গত শনিবার (১৭ জুলাই) কোভিশিল্ড টিকা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার (এসআইআই) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আদর পুনাওয়ালা এক টুইটে জানায়, করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি দিয়েছে ফ্রান্স, জার্মানিসহ ইউরোপের ১৬ টি দেশ।

দেশগুলো হলো- ফ্রান্স, জার্মানি, স্লোভেনিয়া, অস্ট্রিয়া, গ্রিস, আয়ারল্যান্ড, এস্তোনিয়া, স্পেন, আইসল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, আফগানিস্তান, অ্যান্টিগা, আর্জেন্টিনা, বাহরিন, বাংলাদেশ, বার্বাডোজ, ভুটান, বলিভিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, আইভরি কোস্ট, ডমিনিকা, মিশর, ইথিওপিয়া, ঘানা, হাঙ্গেরি, জামাইকা, লেবানন, মলদ্বীপ, মরক্কো, নামিবিয়া, নেপাল, নাইজেরিয়া, সেন্ট কিটস, সলোমন আইল্যান্ড, সোমালিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো এবং ইউক্রেন।