243 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

খাদুরাইল গ্রামের সড়কটির নাম পরিবর্তন করে মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরনের জন্য আবেদন

  • 53
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    53
    Shares

বিজয়নগর প্রতিনিধি ঃ বিজয়ের মাস ও মুজিব শতবর্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে রাজাকার দেলোয়ার হোসেনের নামে থাকা উপজেলার খাদুরাইল গ্রামের সড়কটির নাম পরিবর্তন করে একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরনের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছেন বিজয়নগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সার্জেন্ট (অবঃ) তারা মিয়া।

গত ২১ ডিসেম্বর সোমবার তিনি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এই আবেদন করেন।আবেদনের অনুলিপি স্থানীয় সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, পুলিশ সুপার, উপ-পরিচালক এন.এস.আই, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে প্রদান করা হয়।

আবেদনে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার সার্জেন্ট (অবঃ) তারা মিয়া বলেন, উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের খাদুরাইল গ্রামের মৃত ফুল মিয়ার ছেলে দেলোয়ার হোসেন মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ইছাপুরা ইউনিয়নের শান্তি কমিটির সভাপতি ছিলেন। এ সময় তিনি সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন, তাদের বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। তার নির্দেশে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে আড়িয়ল বাজারের দক্ষিণ পাশে ব্রীজের গোড়ায় উপজেলার সাটিরপাড়া গ্রামের আবদুল গফুর, আবদুল হাকিম, আবদুল মালেক, রামচন্দ্রপুর গ্রামের দুধ মিয়া সর্দার, খোদারিয়া গ্রামের শহীদ চৌধুরী সহ মোট সাতজন মুক্তিকামী নিরীহ মানুষকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করা হয়।

 

দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২ সালে দালাল আইনে কুখ্যাত রাজাকার দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থানায় মামলা হলে ওই মামলায় রাজাকার দেলোয়ার হোসেন ৩ মাস ১০ দিন কারাবাস করেন। আবেদনে তিনি বলেন, রাজাকার দেলোয়ার হোসেনের নামে থাকা সড়কটির নাম পরিবর্তন করে উপজেলার একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরনের দাবিতে গত ৯ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় উপজেলার চম্পকনগর বাজারে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করে উপজেলার সর্বস্তরের মুক্তিযোদ্ধারা।

আবেদনে তিনি বিজয়ের মাসে ও মুজিব শর্তবর্ষে রাজাকার দেলোয়ার হোসেনের নামে থাকা সড়কটির নাম পরিবর্তন করে উপজেলার একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার নামে নামকরনের দাবি জানান।এ ব্যাপারে বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের প্রশাসক কে.এম ইয়াছির আরাফাত সাংবাদিকদের বলেন, আমি এই উপজেলায় নতুন যোগদান করেছি। এ ব্যাপারে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

  • 53
    Shares