267 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

টিকা মানুষের শরীরে কতদিন কার্যকর থাকবে?

টিকা মানুষের শরীরে কতদিন কার্যকর থাকবে?

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পথিক রিপোর্ট:চীনের উহান শহর থেকে ২০১৯ সালের শেষ দিকে ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। তারপরের ঘটনা কারও অজানা নয়। সদ্য বিদায়ী ২০২০ সাল জুড়ে ছিলে এ ভাইরাসের তাণ্ডব। কোটি কোটি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে লাখ লাখ।

করোনার প্রথম ঢেউ শেষে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় ঢেউ। তবে আশার কথা এরই মধ্যেই বিশ্বজুড়ে চলছে গণটিকাদানের তোড়জোড়। বাংলাদেশে যে টিকা পাওয়া নিয়ে এখন আলোচনা চলছে, সেটি যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টিকা নেওয়া মানেই করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকার গ্যারান্টি নয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির সাবেক প্রোগ্রাম ম্যানেজার তাজুল ইসলাম এ বারি বলেন, টিকা মানুষের শরীরে কতদিন কার্যকর থাকবে সেটা নিশ্চিত নয় কেউই।

তিনি বলেন, টিকার সুরক্ষা কি মানুষের শরীরে তিন মাস থাকবে, ছয় মাস থাকবে নাকি একবছর থাকবে সে বিষয়ে কেউই নিশ্চিত নয়। কারণ এটা অজানা। এর পরে বুস্টার ডোজ নিতে হবে কি-না, সেটাও অজানা। সুতরাং টিকা নিলেও মানুষকে আরও কিছুদিন সতর্ক থাকতেই হবে।

চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সমীর কুমার সাহা বলেন, যে কোনো টিকা আসার আগে বেশ কয়েক বছর সময় নিয়ে এর কার্যকারিতাসহ বিভিন্ন বিষয় দেখা হয়। এবার একটি নজিরবিহীন পরিস্থিতি। ফলে অনেক কিছু নিয়েই প্রশ্ন আছে।

তবে তিনি এটাও বলেছেন, কতদিন সুরক্ষা থাকবে সেটা অজানা হলেও সুরক্ষা যে পাওয়া যাবে এ বিষয়টা কোম্পানিগুলো পরীক্ষা করে দেখতে পেয়েছে।

এখন প্রশ্ন বাংলাদেশে কত মানুষকে টিকা দিতে হবে? দেখা যায়, কোনো একটি দেশে সাধারণত ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষ টিকার আওতায় এলেই দেশব্যাপী সুরক্ষাবলয় তৈরি হয়েছে বলে মনে করা হয়।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশে শতকরা ৮০ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনতে পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। সেক্ষেত্রে সংখ্যাটি হবে সাড়ে ১৩ কোটিরও বেশি।

তিনি বলেন, চাহিদা অনুযায়ী টিকা সংগ্রহ এবং প্রয়োগে এক বছরেরও বেশি সময় লেগে যাবে।

মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা আরও বলেন, টিকার পরেও মানুষকে সামাজিক দূরত্ব, মাস্ক পরা অব্যাহত রাখতে হবে।

তিনি বলেন, সতর্ক থাকতেই হবে। যেহেতু টিকার কার্যকারিতা শতভাগ জানা নেই। সেক্ষেত্রে সংক্রমণ এড়াতে সতর্ক থাকাই নিরাপদ।