350 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

চীনে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩০২

পথিক রিপোর্ট: ভারী বৃষ্টিপাতের জেরে গত মাসে চীনের হেনান প্রদেশে বন্যায় এখন পর্যন্ত ৩০২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও ৫০ জন। প্রদেশটিতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কমবেশি ১ কোটি ৩০ লাখ মানুষ। প্রায় নয় হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে চীনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

হেনান চীনের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ ও দরিদ্রতম একটি প্রদেশ। সেখানে বিপুল পরিমাণ কৃষিজমি ও অসংখ্য কারখানা রয়েছে। বন্যায় মৃত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই প্রদেশটির ঝেংঝউ শহরের।

গতকাল সোমবার ঝেংঝউয়ের মেয়র হউ হং সংবাদ সম্মেলনে বলেন, শহরের ভূগর্ভস্থ কার পার্কিংয়ে ৩৯ জনের মরদেহ পাওয়া যায়। এ ছাড়া শহরের পাতালরেল ৫ নম্বর লাইন প্লাবিত হয়ে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়।

গত মাসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে ঝেংঝউয়ের পাতালরেলের ভেতরে বন্যার পানি ঢুকে যাওয়ার পর যাত্রীদের বেঁচে থাকার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করতে দেখা যায়। একপর্যায়ে বগির ছাদ কেটে তাঁদের বের করা হয় বলে জানায় স্থানীয় গণমাধ্যম। গত সপ্তাহে ওই পাতালরেলের স্টেশনে মৃত ব্যক্তিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

জুলাইয়ে ঝেংঝউ শহরে টানা তিন দিনের বৃষ্টিতে পাতালরেলের স্টেশনসহ রাস্তাঘাট ডুবে যায়। এ সময়ের মধ্যে শহরটিতে এক বছরের সমপরিমাণ বৃষ্টিপাত হয়। স্থবির হয়ে পড়ে শহরটির সব কার্যক্রম। বন্যার কারণে হেনান প্রদেশের অনেক বাঁধ ভেঙে পড়ার আশঙ্কার মুখে পড়ে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় নদীর তীরবর্তী এলাকাগুলোয় সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়।

চীনে বর্ষাকালে প্রায় প্রতিবছরই বন্যার দেখা দেয়। দেশটিতে নদীর তীরে ব্যাপক হারে বাঁধ নির্মাণের জন্য বহুলাংশে দায়ী বলে উল্লেখ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

হালিমা খাতুন জেবিন

সূত্র:প্রথম আলো

[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]