340 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ছাত্রসেনা সরাইল উপজেলার কাউন্সিলে অধিবেশনে-অধ্যক্ষ মহিউদ্দিন মোল্লা।

  • 271
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    271
    Shares

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামঃ-

সঙ্ঘবদ্ধভাবে নবীর ব্যঙ্গচিত্রের প্রতিবাদে করতে হবে।
************************************
ইসলাম শান্তির ধর্ম, আজ সেই শান্তির ধর্মকে কলঙ্কিত করতে ইসলাম বিদ্বেষী ইহুদিচক্র পূর্বপরিকল্পিত ভাবে বিশ্বে কাজ করে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে ফ্রান্স সহ যে সকল রাষ্ট্রে রাসুল (দঃ)’র ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে রাসুলের অবমাননা করা হয়েছে, সে সকল ব্যঙ্গচিত্র ও অবমাননা তাঁরই প্রমাণ বহন করছে। আজ বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা সরাইল উপজেলার কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ কাজী মহিউদ্দিন মোল্লা এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, ইহুদি খ্রিস্টানদের সাথে তাল মিলিয়ে আমার দেশের মুসলিমনামধারী কিছু ইয়াজিদ অনবদ্য রাসুল (দঃ) কে অবমাননা করে আসছে। তিনি এ অবমাননা ও ব্যঙ্গচিত্রের তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সকল ব্যঙ্গচিত্র ও অবমাননার প্রতিবাদ সঙ্ঘবদ্ধভাবে করার জন্য উপস্থিত সকলকে অনুরোধ করেন।

কাউন্সিল অধিবেশনে উদ্বোধক ছিলেন উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের সভাপতি মাওলানা এজেডএম সাইদুর রহমান মিল্লাত। বিশেষ অতিথি ছিল উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর সহ-সভাপতি পীরে তরিকত মাওলানা সামসুল হক রেজভী, যুবসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আহবায়ক মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, উপজেলা ইসলামী ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আতিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নাজমুল হোসাইন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কাজী মনিরুজ্জামান, যুবসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্য ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রসেনার সাবেক সফল সভাপতি যুবনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা ইসলামী যুবসেনার সভাপতি পীরে তরিকত হাফেজ শাহাদাত হোসাইন, সহ-সভাপতি মুফতি শাহিনুল ইসলাম, ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সাবেক আহবায়ক মাওলানা সাদ্দাম হোসাইন।

প্রধান বক্তা ছিল ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সভাপতি মুহাম্মদ ইকবাল হোসাইন শাহ বাবুল।কাউন্সিল অধিবেশনটি আজ ১৪ নভেম্বর শনিবার সকাল ১০ ঘটিকায় সরাইল আরিফাইল জামে মসজিদে উপজেলা আহবায়ক মুহাম্মদ কাউসার উদ্দিন জালালির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার যুগ্ম-আহবায়ক মুহাম্মদ ইব্রাহিম আহমেদ বাবুলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, মাও. আনোয়ার হোসেন, হাফেজ আমিনুল ইসলাম, মুহাম্মদ আবুল হাসেম, হাফেজ নাসির উদ্দীন, ইঞ্জিনিয়ার ইব্রাহিম আহমেদ, হাফেজ মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, হাফেজ ইসমাঈল হোসেন, মুহাম্মদ ঈমান আলী, হাফেজ আতিকুর রহমান, মুহাম্মদ শাহজাহান মিয়া সহ প্রমূখ।

উক্ত কাউন্সিলে সর্বসম্মতিক্রমে মুহাম্মদ কাউসার উদ্দিন জালালিকে সভাপতি, মুহাম্মদ ইব্রাহিম আহমেদ বাবুলকে সাধারণ সম্পাদক ও হাফেজ মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিনকে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করে ৩১ সদস্যের একটি শক্তিশালী কমিটি ঘোষণা করা হয়।

  • 271
    Shares
  • 271
    Shares