553 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

জনগণের দুর্ভোগ লাঘবে নিজস্ব অর্থায়নে সাঁকো তৈরি করে দিলেন চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লা

  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    28
    Shares
হালিম সৈকত,  কুমিল্লা: কুমিল্লার তিতাস উপজেলার  ভিটিকান্দি ইউনিয়নের ভিটিকান্দি গ্রাম আর পোড়াকান্দি গ্রামের মাঝ দিয়ে বয়ে গেছে একটি খাল।
দুই গ্রামের  সংযোগস্থল সেই খালের উপর  নেই কোনও ব্রিজ। তাই দুই গ্রামের প্রায় কয়েক হাজার মানুষের কষ্টের সীমা নেই। তাদের দীর্ঘদিনের দাবি গ্রাম দুটির সংযোগস্থলে একটি ব্রিজ। কিন্তু সরকারি বরাদ্দ না আসায় তৈরি করা সম্ভব হয়নি ব্রিজটি।  এতে সমস্যা হচ্ছে সাধারণ মানুষের। স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়তে সমস্যা হচ্ছে, কৃষকের  উৎপাদিত ফসল পরিবহনে সমস্যা হচ্ছে।  রোগী পরিবহনেও হচ্ছে নানাবিধ সমস্যা। মোট কথা দুই গ্রামের জনগণের দুর্ভোগের আর সীমা নাই। তাই
পোড়াকান্দি টু ভিটিকান্দির জনগনের যাতায়াত সমস্যা দূর করতে ভিটিকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের দুই দুই বারের সফল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবুল হোসেন মোল্লার নিজস্ব অর্থায়নে বাঁশের সাঁকু নির্মাণ করে দিয়ে মানবতার নজির স্থাপন করলেন তিনি।
বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণ করতে খরচ হয়েছে প্রায় ২০ হাজার টাকা।
গ্রামবাসীরা বলেন, যখনই ভিটিকান্দি ইউনিয়নে কোন সমস্যা দেখা দেয় তখনই এগিয়ে আসেন চেয়ারম্যান আবুল হোসেন মোল্লা। সরকারি বরাদ্দ না থাকলেও নিজস্ব অর্থায়নে কাজ করে দেন। কখনোই কোন সমস্যার জন্য খালি হাতে ফিরতে হয় নি সাধারণ জনগণকে ।
এই বিষয়ে ভিটিকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রিয়  চেয়ারম্যান    মোঃ আবুল হোসেন মোল্লা বলেন, সাধারণ জনগণের কষ্ট ও অসুবিধার কথা ভেবেই বাঁশের সাঁকোটি আমার অর্থ দিয়ে তৈরি করে দিয়েছি। সরকারি বরাদ্দ কখন আসে তার কোন ঠিকঠিকানা নাই।
বর্ষাকালে দুই গ্রামের লোকজনের চলাচলের সুবিধার জন্যই আমার এই উদ্যোগ। আমি যতদিন বেঁচে থাকবো ইউনিয়নবাসীর সেবা করেই যাবো।  আমি সকলের নিকট দোয়া চাই যাতে, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আমার ইউনিয়নবাসীর সেবা করে মরতে পারি।
  • 28
    Shares
  • 28
    Shares