130 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

তলিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় ভারতের ১২ শহর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ভারতের ১২টি উপকূলবর্তী শহর তলিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। ইন্টারগভর্নমেন্টাল প্যানেল অন ক্লাইমেট চেঞ্জের (আইপিসিসি) প্রতিবেদনে এই শঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। অবশ্য বিজ্ঞানীরা আগে থেকেই বলে আসছেন যে, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বিশ্বের অনেক গুরুত্বপূর্ণ শহর পানির নিচে তলিয়ে যেতে পারে।আইপিসিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সমুদ্রের পানির স্তর যে হারে বেড়ে চলেছে, তাতে আগামী বেশ কিছু বছরের মধ্যে ভারতের উপকূলবর্তী ১২টি শহর তলিয়ে যেতে পারে। প্রায় ৩ ফুট পানির নিচে এসব শহর তলিয়ে যেতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্যে মুম্বাই, চেন্নাই, বিশাখাপত্তম ও কোচির মতো গুরুত্বপূর্ণ শহরও রয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উষ্ণায়নের কারণে বিশ্বব্যাপী পানির স্তর যেভাবে বাড়ছে, সেটা নিয়ে স্পেস এজেন্সিগুলোও চিন্তিত। ভারতের এই ১২টি উপকূলবর্তী শহরের দিকে তারাও নজরে দিয়েছে। সংস্থাগুলো বলছে, ভারতের এই শহরগুলো ব্যাপক ঝুঁকির মধ্যে দাঁড়িয়ে আছে।

প্রতিবেদনে আইপিসিসি জানিয়েছে, বিশ্বের মধ্যে এশিয়ায় পানির স্তর বৃদ্ধির হার অনেক বেশি। এর আগে যেখানে শত বছরে একবার সমুদ্রের পানির স্তর পরিবর্তিত হতে দেখা গেছে, সেখানে আগামী কয়েক বছরে মাঝে-মধ্যেই সেই পরিবর্তন লক্ষ করা যাবে। এতে বেড়ে যাবে সমুদ্রের পানির স্তর। আর এই হারে যদি পানির স্তর বাড়তে থাকে তাহলে চলতি শতাব্দীর শেষের দিকে ভারতের উপকূলবর্তী ১২টি শহর তলিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

প্রতিবেদনে শহরগুলোর কোনটি কত ফুট পানি নিচে তলিয়ে যাবে সেটাও উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হচ্ছে- কোচিন ২.৩২ ফুট, মুম্বাই ১.৯০ ফুট, বিশাখাপত্তম ১.৭৭ ফুট, চেন্নাই ১.৮৭ ফুট, কান্দলা ১.৮৭ ফুট, ওখা ১.৯৬ ফুট, ম্যাঙ্গালোর ১.৮৭ ফুট, ভৌনগর ২.৭০ ফুট, ও তুতিকোরিন ১.৯ ফুট, মরমুগাও ২.০৬ ফুট, পরাদ্বীপ ১.৯৩ ফুট এবং খিদিরপুর ০.৪৯ ফুট পানির নিচে তলিয়ে যেতে পারে।

এইচ.কে.জে

সূত্র:নিউজ টোয়েন্টি ফোর