706 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

তিতাসে সালাহ্উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রেক্ষিতে সংবাদ সম্মেলন

হালিম সৈকত,  কুমিল্লা: তিতাস উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সালাহউদ্দিন আহমেদ এর বিরুদ্ধে বিএনপি জামায়াত সমর্থিত মেম্বারদের মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ইঞ্জিনিয়ার সালাহ্উদ্দিন আহমেদ। ৪ অক্টোবর ২০২০ খ্রি. সকাল ১১টায় আসমানিয়া বাজার চেয়ারম্যানের অস্থায়ী কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় চেয়ারম্যান সালাহ্উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।  আমি কোন অন্যায় করি না এবং অন্যায়কে প্রশ্রয় দেই না। বিএনপি জামায়াত সমর্থিত মেম্বাররা পরিকল্পিতভাবে আমার দীর্ঘদিনের সুনাম নষ্ট করার হীন উদ্দেশ্য নিয়ে ইউএনও অফিসে কাল্পনিক অভিযোগ করেছেন। তাদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ইউএনও মহোদয় তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করে দেন। এবং তদন্ত করে মেম্বারদের অভিযোগের কোন সত্যতা খুঁজে পাননি। আমি মেম্বারদের এই হীন, মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই।
যে মেম্বারগণ আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে তারা প্রত্যেকে বিভিন্ন অপরাধের সাথে জড়িত। যেমন বিল্লাল মেম্বার চাঁদাবাজী, বিচার বানিজ্যের সাথে জড়িত। তার ২ ভাই ইয়াবা বিক্রি ও সেবনের সাথে জড়িত। দুজনই মাদক মামলার আসামী। জুলফিকার মেম্বার সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ও তার ভাইয়েরা মাদক ও রাষ্ট্র বিরোধী নাশকতা মামলার আসামী এবং সে একজন বড় মাপের জুয়ারী। ফরিদ মেম্বার রাষ্ট্রবিরোধী নাশকতা মামলা, নারীরির্যাতন মামলার আসামী। জুয়া খেলা তার মূল পেশা। মোকবুল মেম্বার একজন বড়মাপের জুয়ারী। সারাদেশে তার জুয়ার রমরমা ব্যবসা রয়েছে। জাল টাকার ব্যবসা তার প্রধান ব্যবসা। পরিষদের বিভিন্ন প্রকল্প কাজ বাস্তবায়নের সীমাহীন দুর্নীতির সাথে জড়িত।
এসব দুর্নীতি ও অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলায় তারা আমার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে অসম্মান করার জন্য নানা ফন্দি আটছে।
সংবাদ সম্মেলনের পূর্বে আসমানিয়া বাজারে  হাজার হাজার মানুষ অভিযোগের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ মিছিল করেন। তারা অভিযোগ করে বলেন, সালাহ্উদ্দিন চেয়ারম্যানের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষাণ্বিত হয়ে কিছু দুর্নীতিবাজ মেম্বার এসব অপকর্ম করছে। আমরা তাদের এই ঘৃন্য কর্মকান্ডের নিন্দা জানাই।
[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]