360 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

দেশের করোনা পরিস্থিতির নিয়ে দারুল মদিনা একাডেমির ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত।

  • 35
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    35
    Shares

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামঃ-

 মানুষের কল্যাণ সাধন করতেই গাউসিয়া কমিটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

আ্যডভোকেট মোছাহেব উদ্দীন বখতিয়ার

===========================
গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব আ্যডভোকেট মোছাহেব উদ্দীন বখতিয়ার বলেছেন, নবী বংশের উজ্জ্বলতম প্রদীপ হযরত হাফিজ ক্বারী সৈয়দ মুহাম্মদ তৈয়ব শাহ (রহ.) এর নির্দেশনায় মানুষের কল্যাণ সাধন করতেই ১৯৮৬ সালে গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। করোনা মহামারীর মতো ক্রান্তিকালে মানবতার পাশে দাঁড়িয়ে গাউসিয়া কমিটি হযরত তৈয়্যব শাহ (রহ.) এর দূরদৃষ্টির সার্থক রূপায়ন করেছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতব্যক্তিদের জাত-ধর্ম বিবেচনা না করে দাফন কাফন কার্যক্রম করে গাউসিয়া কমিটি মহান সূফিদের অসাম্প্রদায়িক চেতনার রূপের সাথে সমাজকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে।

তিনি দেশব্যাপী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতদের কাফন-দাফন কার্যক্রম, অসুস্থ রোগীদের আ্যম্বুলেন্স ও অক্সিজেন সরবরাহ কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট গাউসিয়া কমিটির কর্মীদের সত্যিকার বীর আখ্যা দিয়ে তাদের সামাজিকভাবে সম্মানিত করতে ও সুরক্ষা সামগ্রী দিয়ে তাঁদের পাশে দাঁড়াতে দেশবাসীর প্রতি আহবান জানান। গত ১৮ জুন বৃহস্পতিবার রাত্রে দারুল মদিনা মডেল একাডেমি আয়োজিত “মানবতার সেবায় অনন্য নাম গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ” শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

দারুল মদিনা মডেল একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক মুহাম্মদ নঈমুল ইসলামের সঞ্চালনায় অতিথি আলোচক হিসেবে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব আ্যডভোকেট মোছাহেব উদ্দীন বখতিয়ার, গাউসিয়া কমিটি রংপুরের সিনিয়র সহ-সভাপতি আ্যডভোকেট রিদওয়ান আশরাফি, ইউ.এ.ই কেন্দ্রীয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ জানে আলম, ওমান কেন্দ্রীয় পরিষদের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মদ জসিম উদ্দীন, ঢাকা মহানগরের সহ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ হোসাইন ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলার প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মুহাম্মদ আহসান হাবীব চৌধুরী হাসান।

বক্তারা করোনাকালে স্ব স্ব অবস্থানে গাউসিয়া কমিটির মানবিক তৎপরতা তুলে ধরেন এবং মানবিক কার্যক্রমে সরকারি-বেসরকারি সহায়তা কামনা করেন। আ্যডভোকেট মোছাহেব উদ্দীন বখতিয়ার আরো বলেন, ইতোমধ্যে সারাদেশে ৩০০ এর বেশি করোনা আক্রান্ত হয়ে ও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃতদেহ গাউসিয়া কমিটি দাফন করেছে এবং প্রতিনিয়ত আ্যম্বুলেন্স ও অক্সিজেন সরবরাহ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। যতদিন দেশে করোনা থাকবে ও করোনা আক্রান্ত বা করোনা উপসর্গ নিয়ে মানুষ মৃত্যু বরণ করবে ততদিন গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ এর সদস্যগন মৃতদের দাফন কাফনে কাজ করে যাবে।

  • 35
    Shares
  • 35
    Shares