90 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

নরসিংদী সদর হাসপাতাল থেকে নবজাতক শিশু চুরি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ ফারদিন হাসান দিপ্ত. নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদী সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা দুইদিন বয়সী এক ছেলে নবজাতক চুরির ঘটনা ঘটেছে। রোববার (০৯ মে) বেলা ১১টার দিকে এই চুরির ঘটনা ঘটেছে।

চুরি হওয়া নবজাতক নরসিংদী সদর উপজেলার মহিষাশুড়া ইউনিয়নের চান্দেরপাড়া এলাকার প্রসূতি সুমাইয়া আক্তারের ছেলে।
নরসিংদী সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউর রহমান ও নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আমিরুল হক শামীম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পরিবারের সদস্য ও পুলিশ জানায়, দুই দিন আগে নরসিংদী সদর হাসপাতাল সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রসূতি সুমাইয়া আক্তারের সিজারিয়ান অস্ত্রোপচার করা হয়। এসময় এক ছেলে নবজাতকের জন্ম হয়। পরে ঠান্ডাজনিত সমস্যা দেখা দেয়ায় রোববার বেলা ১১টার দিকে ওই নবজাতককে চিকিৎসার জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের ২য় তলায় বহি:বিভাগে নিয়ে আসেন নবজাতকের নানী পরিবানু। এসময় হাসপাতালে রোগীর লম্বা সিরিয়াল থাকায় সিরিয়াল এগিয়ে আনার চেষ্টা করার জন্য নবজাতকের নানী পরিবানুকে পরামর্শ দেয় পাশে থাকা অজ্ঞাত এক নারী। এক পর্যায়ে নবজাতক নাতিকে অজ্ঞাত ওই নারীর কোলে দিয়ে সিরিয়ালের খবর নিতে সামনে এগিয়ে যান নবজাতকের নানী পরিবানু। এই সুযোগে  কয়েক মিনিটের মধ্যেই ওই নবজাতককে নিয়ে উধাও হয়ে যায় অজ্ঞাত ওই নারী।
খবর পেয়ে নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও সিসিটিভি ফুটেজ দেখে নবজাতক চুরিতে অভিযুক্ত ওই নারীকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।
নবজাতকের নানী পরিবানু বলেন, শিশুটিকে যদি না পাওয়া যায় তাহলে আমার মেয়ের সংসার নষ্ট হয়ে যাবে। আমি আমার নাতিকে ফিরে পেতে চাই। হারানো ধনকে বুকে পেতে চাই।
নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আমিরুল হক শামীম বলেন, সদর হাসপাতালে নবজাতক চুরির মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা এই প্রথম। নবজাতককে উদ্ধার ও অভিযুক্ত ওই নারীকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারের জন্য হাসপাতালের সিসিটিভি ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করছে পুলিশ। আমরাও হাসপাতালের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করছি।