94 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

পৃথিবীর যে কোনো স্থানে নব চন্দ্র দেখা দিলে সেই অনুযায়ী ঈদ পালন করা উচিত

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মুন্সিগঞ্জের ৯টি গ্রামে সৌদির সঙ্গে মিল রেখে বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে। গ্রামগুলো হচ্ছে- সদর উপজেলার আনন্দপুর, শিলই, নায়েবকান্দি, আধারা, মিজিকান্দি, কালিরচর, বাংলাবাজার, বাঘাইকান্দির ও কংসপুরা একাংশ।

গ্রামগুলোর জাহাগীর তরিকার প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ কয়েক বছর ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে এবারও একদিন আগে ঈদ উদযাপন করছে। বিগত বছরগুলোর মতো শিলই গ্রামে এই ঈদ জামাতে ইমামতি করেছেন হাজী ডা. মনিরুল ইসলাম। তিনি এবার অসুস্থ থাকায় তার ছেলে ঈদ জামাত পড়ান মো. সফিকুল ইসলাম।

সকাল ৯টায় খোলা মাঠে স্থানীয় ঈদগায়ে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। কোলাকুলিসহ আনন্দে মেতে উঠেন গ্রামবাসী।

এই জামাতে অংশ নেন জনতা ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার মো. মাসুদ মিয়া। তিনি বলেন, পৃথিবীর যে কোনো স্থানে নব চন্দ্র দেখা দিলে সেই অনুযায়ী ঈদ পালন করা উচিত। তাই আমরা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করছি।