প্রেমিকের সঙ্গে দেখেই মেয়েকে হত্যা করলেন মা

লেখক:
প্রকাশ: ১ মাস আগে

ফাঁকা বাড়িতে প্রেমিককে ডেকে সময় কাটাচ্ছিলেন। এমন সময়ে মা এসে হাজির। হাতে নাতে মেয়েকে ধরতে পেরে চরম শাস্তি দিলেন মা। গলায় শাড়ির ফাঁস দিয়ে মেয়েকে হত্যা করলেন তিনি। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হায়দরাবাদে।

 

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম ভার্গবী। বুধবার কাজের জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন তার মা। বাড়িতে আর কেউ ছিলেন না। ভার্গবীর ভাই গিয়েছিল পাশের বাড়িতে। সেই সুযোগেই প্রেমিককে বাড়িতে ডেকে আনেন ১৯ বছর বয়সী ভার্গবী।

 

প্রেমিকের সঙ্গেই সময় কাটাচ্ছিলেন। হঠাৎ কাজ থেকে বাড়িতে ফিরে আসেন ভার্গবীর মা জাঙ্গাম্মা। দুপুরের খাবার খেতে বাড়িতে ফিরেছিলেন তিনি।

 

বাড়িতে ঢুকেই ভার্গবী ও তার প্রেমিককে হাতেনাতে ধরে ফেলেন জাঙ্গাম্মা। দুজনকে দেখে প্রচণ্ড রেগে যান। মেয়ের প্রেমিককে তাড়িয়ে দেন বাড়ি থেকে। তার পরেই ভার্গবীকে প্রচণ্ড মারধর করতে শুরু করেন জাঙ্গাম্মা। এক পর্যায়ে নিজের শাড়ি দিয়ে মেয়ের গলায় ফাঁস দিয়ে তাকে হত্যা করেন। পুরো ঘটনা পাশের বাড়ির জানালা থেকে দেখে ফেলে ভার্গবীর ভাই।

 

 

হায়দরাবাদের ইব্রাহিমপটনমের এই ঘটনায় এরই মধ্যে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ভার্গবীর ভাইয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে শুরু হবে তদন্ত।

 

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ভার্গবীর বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল তার পরিবার। সেই জন্য পাত্র দেখাও চলছিল। তার মধ্যেই মেয়েকে প্রেমিকের সঙ্গে দেখে রেগে গিয়ে হত্যা করেছেন মা।

 

সূত্র: এনডিটিভি

ইমি/পথিক নিউজ