313 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ফ্রান্সে রাসূলকে ব্যঙ্গচিত্রের প্রতিবাদে দামচাইলের মানববন্ধনে-যুবনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম।

  • 195
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    195
    Shares

নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন ফ্রান্স সরকারের পূর্ব পরিকল্পিত


মানবতার মুক্তিরদূত প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা আহমদ মুজতবা (দ:) কে ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় যে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। এ ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ সাদেকপুর ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে গতকাল ০২ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০ ঘটিকায় দামচাইল বাজারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ মতিউর রহমান। এতে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিল সাদেকপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা মুহাম্মদ সেলিম হোসাইন আল-ক্বাদরী। মানববন্ধনে বাংলাদেশ ইসলামী যুবসেনার কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্য ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রসেনার সাবেক সফল সভাপতি যুবনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম প্রধান অতিথির বক্তিতায় বলেন, যে নবীর আগমন না হলে শুধু পৃথিবী নয় কোন কিছুই সৃষ্টি হতনা, সে নবীকে ফ্রান্স ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে যে অপরাধ করেছে তা বিশ্ব মানবতাকেও হারমানিয়েছে। প্রিয় নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে শুধু বাংলাদেশ নয় পুরো মুসলিম বিশ্ব উত্তাল। এ অপরাধের জন্য যতক্ষণ পর্যন্ত ফ্রান্স সরকার বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ এর কাছে ক্ষমা না চাইবে, ততক্ষণ পর্যন্ত মুসলিমজাতি এর তীব্র প্রতিবাদ করে যাবে।

যুবনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম আরো বলেন, অদৃশ্য করোনার প্রাদুর্ভাবে যখন পুরো বিশ্ব স্তম্ভ তখন ফ্রান্সে রাসূলের প্রতি বিদ্বেষপূর্ণ আচরণ বৈশ্বিক জঙ্গিবাদ সৃষ্টির পায়তারা ছাড়া আর কিছু নয়। শান্তিময় পরিবেশ কে অশান্ত করার হীন প্রয়াসে ফ্রান্সে প্রিয় নবীকে ব্যঙ্গচিত্র করা হয়েছে। এ ব্যঙ্গচিত্র নতুন নয়, ফ্রান্স এর আগেও এমন ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করেছে। তিনি বলেন, যে সময়ে প্রিয় রাসুলের আগমনে মুসলিমবিশ্বে আনন্দের জোয়ার বইছে, ঠিক সে সময়ে ফ্রান্স সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় নবীর প্রতি বিদ্বেষ পোষণ করে প্রিয় নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন সম্পূর্ণ পূর্ব পরিকল্পিত। মুসলমানের কলিজায় আঘাত করতেই এ ব্যঙ্গচিত্র করা হয়েছে। এ ব্যঙ্গচিত্রের জন্য তিনি জাতি সংঘের নিরবতাকে দায়ী করে বলেন, জাতি সংঘ যদি নিরব না থেকে নবীকে ব্যঙ্গচিত্র করার সাথে সাথে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করত, তাহলে ফ্রান্স আজ এ দুঃসাহস দেখাতে পারতনা।

জেলা যুবসেনার আহবায়ক মুহাম্মদ রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাদেকপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, কাউছার আহমেদ মেম্বার, সায়েদুল হক মেম্বার, মাওলানা আল আমিন মোল্লা, মাওলানা মহিউদ্দিন, মাওলান মঈন উদ্দিন, মাওঃ জুবায়ের আহমেদ, মাওলানা নূরে আলম রেজা, মাওলানা রফিকুল ইসলাম, মুহাম্মদ ইসলাম উদ্দিন, ডাঃ নুরে আলম, হাফেজ সাইফুল ইসলাম বাদল, মুহাম্মদ মাসুম মিয়া, মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম রিফাত, মাওলানা ক্বারী ফারুক আহমেদ, হাফেজ মাও. ইব্রাহিম আহমেদ, ক্বারী মাওলানা সামছুল ইসলাম, মাওলানা হাফেজ আবদুল আউয়াল, মাওলানা আমিনুল ইসলাম, হাফেজ মাওলানা মুশাহিদুল ইসলাম সহ প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে দামচাইল বাজার থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি সাদেকপুর চিলোকুট ও আলাকপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় দামচাইল বাজারে এসে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভা, মিলাদ মাহফিল ও দোয়ার মাধ্যমে শেষ করা হয়।

  • 195
    Shares
  • 195
    Shares