124 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া হবে ফেব্রুয়ারীতে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ভারতের সিরাম ইন্সটিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ডঅ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা আগামী ২১ থেকে ২৫শে জানুয়ারির মধ্যে বাংলাদেশে পৌঁছাবে বলে সরকার জানিয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া হবে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম আজ সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

মি. আলম বলেছেন “ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে টিকার প্রথম ডোজ দেয়া হবে। আগে ২৫ লক্ষের কথা বলা হলেও এখন ৫০ লক্ষ মানুষকে প্রথম ডোজ দেয়া হবে।”

টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু হবে ২৬শে জানুয়ারি থেকে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে।

টিকা আসার পর দুই দিন তা বেক্সিমকোর ওয়্যারহাউজে থাকবে।

টঙ্গিতে বেক্সিমকোর দুইটি ওয়্যারহাউজ রয়েছে।

সেখান থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তালিকা অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন জেলায় টিকা পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক।

প্রথমে যে ৫০ লক্ষ টিকা আসবে তার পুরোটাই দিয়ে দেয়া হবে। আট সপ্তাহ পর দ্বিতীয় চালান আসলে সেই ৫০ লক্ষও পুরো দিয়ে দেয়া হবে।

অধিদপ্তর বলছে, নিরাপত্তার দায়িত্বে সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করবে। তবে স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে বলা হয়েছে অতিরিক্ত ভিড় না করে যাদের ভ্যাকসিনের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে, তারাই যাতে টিকা নিতে যান সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

টিকা প্রদানের জন্য বিভিন্ন ধাপসমূহ:

  • নিবন্ধন: জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাইয়ের মাধ্যমে ব্যক্তি নিবন্ধন
  • ভ্যাকসিন কার্ড: ওয়েব পোর্টাল হতে ভ্যাকসিন কার্ড সংগ্রহ
  • এসএমএস বার্তা প্রেরণ: ভ্যাকসিন প্রদানের তারিখ ও তথ্য প্রেরণ
  • প্রথম ডোজ: নির্দিষ্ট তারিখ ও সময়ে প্রদান
  • দ্বিতীয় ডোজ: নির্দিষ্ট তারিখ ও সময়ে প্রদান
  • ভ্যাকসিন সনদ: দুইটি ডোজ নেওয়ার পর পোর্টাল হতে সংগ্রহ

 

  সূত্রঃ বিবিসি বাংলা