86 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক সঙ্গে তিন কন্যা সন্তানের জন্ম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক সঙ্গে তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। গাইনী বিশেষজ্ঞ ডা. লুৎফুন্নাহার লুৎফা সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে শিশুদের পৃথিবীর আলো দেখান। বর্তমানে মা ও শিশুরা সবাই সুস্থ আছেন।

আজ সোমবার (৩১ মে) জেলাশহরের স্ট্যান্ডার্ড হাসপাতালে সুমাইয়া নামক জনৈক নারী এই তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তিনি (সুুুমাইয়া) আজ সকাল আনুমানিক ন’টা নাগাদ প্রসবকালীন নানাবিধ জটিলতা নিয়ে হাসপাতালটিতে ভর্তি হন।

এক পর্যায়ে তার প্রসবকালীন জটিলতা (ব্যথা, পানি ভাঙ্গা, দূর্বলতা, রক্তস্বল্পতা, রক্তের হিমোগ্লোবিন হ্রাস ইত্যাদি) ক্রমশ গাঢ় হতে থাকলে কর্তব্যরত চিকিৎসক (ডা. লুৎফুন্নাহার লুৎফা) জরুরি ভিত্তিতে সিজারিয়ান অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নেন।

প্রসব পরবর্তী সময়ে প্রসুতির পিপিএইচ (প্রসবোত্তর রক্তপাত) শুরু হলে আরো জটিলতার সৃষ্টি হয়। পরে রক্ত সংগ্রহ করে রোগীকে দেয়া হয়। জন্মগ্রহণকারী তিনটি শিশুর ওজন যথাক্রমে ২, ২.২ ও ১.৯ কেজি। তিনজনের মধ্যে কম ওজনসম্পন্ন শিশুটির শ্বাসকষ্টজনিত কিছু জটিলতা থাকলেও বাকি দুজন একেবারেই স্বাভাবিক রয়েছে বলে মুঠোফোনে আমাদের নিশ্চিত করেছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. লুৎফা।

এসময় তিনি আরো বলেন, আজ সকাল ৯টার দিকে সাড়ে আট মাসের এক প্রসূতি প্রসবকালীন নানা সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। কিছুক্ষণ পর তার অবস্থা আরো খারাপের দিকে যেতে থাকলে আমরা জরুরি ভিত্তিতে সিজারিয়ান অপারেশনের সিদ্ধান্ত নিই।

রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কম (৮.৫) ছিলো উল্লেখ করে তিনি বলেন, রক্তস্বল্পতা, শারিরিক দূর্বলতা এবং পিপিএইচ থাকার কারণে প্রসূতির কিছু সমস্যা হলেও বর্তমানে তিনি এবং শিশু তিনটি বিপদমুক্ত ও অনেকটা সুস্থ রয়েছেন।