964 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রেললাইনের পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া যুবকের গলাকাটা মরদেহের পরিচয় সনাক্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রেললাইনের পাশ থেকে উদ্ধার হওয়া যুবকের গলাকাটা মরদেহের পরিচয় সনাক্ত হয়েছে। নিহত যুবকের নাম আসিফ মিয়া (২০)। নিহত আসিফ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের পুনিয়াউটের মৃত বাবুল মিয়ার ছেলে। সে পৌর এলাকার ভাদুঘরে ভাড়া বাসায় বসবাস করতো। পেশায় ছিল ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা চালক। বুধবার দুপুরে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ। এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা-সিলেট-চট্রগ্রাম রেলপথের ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ধুবলা এলাকা থেকে গলাকাটা মরদেহটি উদ্ধার করে রেলওয়ে থানা পুলিশ। ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে মর্গে আসা নিহতের খালাতো ভাই আলাল মিয়া জানান, ৪ বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে আসিফ ছোট৷ সে ভাড়ায় ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা চালাতো। সোমবার বিকেল ৪টায় বাড়ি থেকে অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে যায়। রাতে বাড়িতে আর ফিরেনি। মঙ্গলবার সকালে আসিফের মোবাইলে কল দিলে রিসিভ করেনি। পরে মোবাইলটি বন্ধ পাওয়া যায়। দুপুরে আবার মোবাইলে কল দিলে একজন লোক রিসিভ করে জানায়, ধুবলা রেললাইনে পাশে রক্ত মাখা মোবাইলটি পেয়েছে। সেই সূত্র ধরে আমরা খোঁজ করে বিকেলে আখাউড়া রেলওয়ে থানায় গিয়ে আসিফের মরদেহটি পেয়েছি। তবে তার অটোরিকশাটি পাওয়া যায়নি। আখাউড়া রেলওয়ে জংশন রেলওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাকিউল আযম জানান, এই ঘটনায় নিহতের মা বাদি হয়ে আখাউড়া রেলওয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে। আসিফের অটোরিকশাটি পাওয়া যায়নি। আমরা ধারণা করছি, অটোরিকশাটি নিতেই আসিফকে গলাকেটে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে তদন্ত শুরু করেছে

[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]