305 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৪র্থশ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণ

  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    19
    Shares

পথিক রিপোর্ট:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে ৪র্থশ্রেনীতে পড়ুয়া ১৩ বছরের মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে আপন চাচাতো ভাই। গত মঙ্গলবার(১০ই নভেম্বর) সন্ধ্যার পরে নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নের খাগালিয়া গ্রামে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নাসিরনগর থানায় এখনোও কোন ধর্ষণ মামলা দায়ের হয়নি। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক রাসেল(২০) পলাতক রয়েছে। ভিকটিমের মা জরিনা বেগম জানান, তার মেয়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে বাড়ির দক্ষিনপাশের খালি যায়গায় বান্ধবীদের সাথে খেলাধুলা করছিল। তার মেয়ে খেলাধুলা শেষে সন্ধ্যার দিকে ঘরে ঢুকার সময় রাসেল(২০) নামের তার চাচাতো ভাই তার মুখে কাপড় পেছিয়ে জোরপূর্বক ভাবে তার ঘরে নিয়ে যায়। রাসেলের চাচী জরিনা বেগমকে জানাইলে তারপর তিনি কয়েকজন লোক নিয়ে দরজা ভেংগে মেয়েকে উদ্ধার করেন ৷ পরের দিন এলাকার সরদারকে জানানোর পর তারা কোন সমাধান দিতে পারেননি বলে জরিনা বেগম তার মেয়েকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করান। পরিবার সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত রাসেল ওই গ্রামের মজনু মিয়ার ছেলে। ঘটনার পর থেকে রাসেলকে খোঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বর্তমানে ধর্ষিত মেয়েটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ধর্ষণের শিকার ওই মেয়ে খাগালিয়া নুরে মাদিনা ইফতাদে আশেকে মাওলানা আলিয়া মাদ্রাসা ৪র্থ শ্রেনীর শিক্ষার্থী। বর্তমানে করোনার কারনে মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় পড়াশোনা বন্ধ আছে। শুক্রবার রাতে নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আরিসুল হকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ধর্ষণের কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে ভিকটিমকে আইনী সহযোগিতা দেওয়া হবে।

  • 19
    Shares
  • 19
    Shares