268 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ভাদুঘর গাউছিয়া সুন্নী যুব সংগঠনের আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত।

  • 221
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    221
    Shares

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামঃ-


পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে ভাদুঘর গাউছিয়া সুন্নী যুব সংগঠনে উদ্যোগে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভাটি গতকাল ১৫ নভেম্বর রবিবার বাদ মাগরিব ভাদুঘর উত্তরপাড়া নূরে মদিনা গাউছিয়া সুন্নীয়া হাফেজিয়া মাদাসায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মুহাম্মদ রমজান আলী। এ সময় সংগঠনের সভাপতি স্বাগত বক্তব্যে বলেন, সুন্নীয়তের কার্যক্রমকে বেগবান করার লক্ষ্যে ২০০৬ সালে এই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়। পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে গত ১৪ বৎসর যাবৎ মিলাদুন্নবীর ৩০ দিন ঘরে ঘরে মিলাদ দিন শিরোনামে ভাদুঘরের বিভিন্ন মহল্লার বিভিন্ন ঘরে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন সহ বিভিন্ন সামাজিক ও পারিবারিক কাজে সংগঠনের পক্ষ থেকে সহযোগী করে আসছি।

আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল উদ্বোধক ছিলেন ভাদুঘর শাহী মসজিদের খতিব আলহাজ্ব মাওলানা জাবের আল মানসুর মোল্লা। প্রধান অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত সমন্বয় কমিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সমন্বয়ক ও জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মহিউদ্দিন মোল্লা। তিনি বলেন বর্তমান সময়ে যত মাহফিল বা জলছা হচ্ছে সকল মাহফিল থেকে ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)’র মাহফিল অন্যতম শ্রেষ্ঠ। অন্য সকল মাহফিলে রাসুল (দঃ)’র শুভাগমন সংক্রান্ত যা আলোচনা হয়না ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)’র মাহফিলে তা আলোচনা হয়। আর এ ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ)’র মাহফিল কিয়ামত পর্যন্ত অটুট থাকবে। তিনি বলেন, যদি দুজাহানের বাদশা নবী হযরত মুহাম্মদ মোস্তফা আহমদ মুজতবা (দঃ) এই ধরার বুকে আগমন না করত তবে আল্লাহ তায়ালা কিছুই সৃষ্টি করতেন না। এমন কি আদি পিতা হযরত আদম (আঃ) ও আসতেন না। তিনি আরো বলেন, গাউছিয়া সুন্নী যুব সুন্নীয়ত প্রতিষ্ঠাসহ সমাজে যে ভাবে সামাজিক কাজ করে যাচ্ছে এতে করে সমাজে সুন্নীয়ত প্রতিষ্ঠা হতে বেশী সময় লাগবেনা। তিনি গাউছিয়া সুন্নী যুব সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দের নেক হায়াত ও দীর্ঘায়ু করে মহান আল্লাহ তায়ালার নিকট প্রার্থনা করেন।

সভায় যুবসেনা কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্য যুবনেতা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের যুগ্ম-সাংগঠনিক সচিব আলহাজ্ব এড. মুহাম্মদ ইসলাম উদ্দিন দুলাল, সংগঠনের উপদেষ্টা গ্রামের বিশিষ্ট সর্দার মুহাম্মদ মহসিন মিয়া, বিশিষ্ট সর্দার আবুল কালাম, আশুগঞ্জ চরচারতলা ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক মাও. রবিউল্লাহ নূরী, চাপুইর ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসর আরবি প্রভাষক মুফতি মাহমুদুল হাসান, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত আশুগঞ্জ উপজেলার অর্থ সম্পাদক মাওলানা শফিকুল ইসলাম খোকা, যুবসেনা আশুগঞ্জ উপজেলার সভাপতি মাওলানা আনিসুর রহমান, ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সাবেক সভাপতি মাও. মুফতি আল আমিন মোল্লা, প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোস্তফা জামিল মোল্লা, উপজেলা গাউসিয়া কমিটির অর্থ সম্পাদক এড. জাকির হোসাইন রাসেল, শিক্ষানবিশ আইনজীবী মুহাম্মদ জাবেদ উমর, ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ আজিম উদ্দিন আত্তারী, দাও’আতে ইসলামীর মোবাল্লিগ মাও. নূর মোহাম্মদ, মুহাম্মদ শুক্কুর আলী, মুহাম্মদ ঈমান আলী, মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, ছাত্রসেনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শাখার সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ শানু খাঁন, সিনিয়র সহ-সভাপতি হাফেজ খন্দকার শফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ শরিফ উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ সুমন আহমেদ সহ প্রমুখ।

  • 221
    Shares
  • 221
    Shares