119 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের সামরিক শক্তিতে ‘হতাশ’ মার্কিন জেনারেল

  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

আন্তর্জাতিক:  মধ্যপ্রাচ্যে সবচেয়ে ‘ভয়ংকর’ সামরিক শক্তির অধিকারী ইরান। এমনকি মধ্যপ্রাচ্যে দেশটির যে ক্ষেপণাস্ত্র বাহিনী রয়েছে, সেটি হচ্ছে ওই অঞ্চলের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী বাহিনী।

এমন তথ্য জানিয়েছেন মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি।

ইরানের সামরিক শক্তি সম্পর্কে জেনারেল ম্যাকেঞ্জি মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের আর্মড সার্ভিস কমিটির শুনানিতে এমন স্বীকৃতি দিয়েছেন বলে খবর দিয়েছে পার্সটুডে।

ওই জেনারেল আরো বলেছেন, ব্যাপকভাবে ড্রোন ব্যবহার করছে ইরান। যা থেকে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, কোরিয়া যুদ্ধের পর আকাশ শক্তিতে এই প্রথম পূর্ণ কর্তৃত্ব হারিয়েছে আমেরিকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরাকে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে গত বছর ব্যাপক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় তেহরান। কিন্তু বিশ্বের সুপার পাওয়ার হওয়া সত্ত্বেও সেই ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে পারেনি মার্কিন বাহিনী। অন্যদিকে, মার্কিন বাহিনীর কোনো ড্রোন ইরানের আকাশসীমায় প্রবেশ করলেই তা হয় ভূপাতিত করা হয়েছে কিংবা ইরানি সামরিক বিশেষজ্ঞরা সেটা অক্ষত অবস্থায় নামিয়ে নিয়েছেন। এমন সব ঘটনার পরই আর্মড সার্ভিস কমিটির শুনানিতে এই স্বীকৃতি দিলেন জেনারেল ম্যাকেঞ্জি।

প্রসঙ্গত, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সামরিক শক্তিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধন করেছে ইরান। শুধু দেশেই নয়, মধ্যপ্রাচ্যের সিরিয়া, ইরাক, লেবানন ও ইয়েমেনে বিকল্প শক্তিও তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে দেশটি। অবশ্য তেহরান সব সময় বলে এসেছে যে, তার যে সামরিক শক্তির অধিকারী সেটা শুধু আত্মরক্ষামূলক। আঞ্চলিক দেশগুলোর জন্য তা কোনো ক্রমেই হুমকি নয়। অর্থাৎ আগ বাড়িয়ে ইরান কারো ওপর আধিপত্য বিস্তার তথা হামলা করতে চায় না। তবে আক্রান্ত হলে তার উপযুক্ত জবাব দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে তেহরান।

  • 7
    Shares
  • 7
    Shares