1039 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

মনোহরগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা দোকান ঘর লুটপাট

মনোহরগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলা দোকান ঘর লুটপাট

মশিউর রহমান সেলিম, লাকসামঃ কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার বিপুলাশার ইউপির সাইকচাইল গ্রামে রবিবার রাতে ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতিকে পিটিয়েছে এলাকার একদল সন্ত্রাসী এবং ওই এলাকার একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গুদামে হামলা চালিয়ে ব্যাপক লুটপাট চালিয়েছে ওই সন্ত্রাসী চক্র। এ নিয়ে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

স্থানীয় লোকজন জানায়, ওই সন্ত্রাসী চক্রের মূল হোতা শাহজাহান সাজু একাধিক মামলার আসামী। এমন কোন হীন কাজ নেই তার বাহিনী করে না। এমনকি তাঁর পরিবার পরিজনসহ এলাকার লোকজন তার বাহিনীর অপকর্মের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশ ও একাধিক দপ্তরে সাজু গংদের বিরুদ্ধে বহু অভিযোগ দায়ের করার পরও তাদের অপকর্ম থামছে না।

সূত্রগুলো আরও জানায়, শাহজাহান সাজু একটি মামলায় দীর্ঘদিন জেল খাটার পর গত বৃহস্পতিবার জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়ীতে এসে পূর্বের শত্রæতার জের ধরে শনিবার রাতে এলাকায় ওয়াজ মাহফিল শেষে বাড়ী যাওয়ার পথে স্থানীয় আ’লীগ নেতা মহিউদ্দিন তালুকদার (৭০), ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান বিজয় (২৮) ও ছাত্রলীগ নেতা শরিফ হোসেন কে সাইকচাইল উত্তরপাড়া এলাকায় সন্ত্রাসী সাজু’র নেতৃত্বে বহিরাগত ১৮/২০ জন লোক নিয়ে অর্তকিত ভাবে হামলা চালায় এবং পাশ^বর্তী তানিয়া ট্রেডার্স নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সাজু গংদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

গুরুতর আহত আ’লীগ নেতা মাঈন উদ্দিন তালুকদার জানায়, ওইদিন রাতে ওয়াজ মাহফিল শেষে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসী সাজুর নেতৃত্বে রবিউল, সুজন, কাশেম, সাহাবুদ্দিন, সালাউদ্দিন ও পলাশসহ ১০/১২ জন আমার পথরোধ করে অর্তকিত ভাবে হামলা চালায়। আমার চিৎকারে আশে পাশের লোকজন ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায় এবং আমাকে উদ্ধার করে তাৎক্ষনিক হাসপাতালে নিয়ে যায়। এরপর কি হয়েছে আমি জানি না।

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী তানিয়া ট্রের্ডাসের মালিক আবুল কালাম জানায়, এলাকার বহু অপকর্মের হোতা সাজুর নেতৃত্বে ১০/১২ জন লোক এলাকায় সন্ত্রাসী তান্ডব সৃষ্টি করে অনেককে আহত করেছে এবং আমার গুদাম ঘরে হামলা চালিয়ে প্রায় ১০/১২ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। অপরদিকে অভিযুক্ত শাহজাহান সাজুসহ তার বাহিনীর একাধিক সদস্যের মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও তাদের কোন বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার আবু ছায়েদ জানায়, বিভিন্ন মাধ্যমে ঘটনাটি শুনেছি। তখন আমি ওয়াজ মাহফিলে ছিলাম। পরক্ষনে ঘটনাস্থলে এসে বিস্তারিত অবগত হয়েছি। তবে ওই ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

এ ব্যাপারে মনোহরগঞ্জ থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ঘটনাটি বিভিন্ন মাধ্যমে আমরা শুনেছি। এখনও কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]