313 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

মানবিক চিকিৎসায় ফিরে পেলো ৮৫ বছরে বৃদ্ধার প্রাণ

  • 51
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    51
    Shares

হালিমা খানম : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার চর ইসলামপুর ইউনিয়নের নাজিরাবাড়ি এলাকার মাখন চান( ৮৫) নামের এক বৃদ্ধ মহিলা অনেক দিন যাবত ডান পায়ের পঙ্গুত্ব নিয়ে ভুগছিলেন সে হাটা চলা করতে পারে না।তার ডান পা ভেংগে গিয়েছিল যার কারনে দুর্বিষহ অবস্থায় দিন যাপন করতেন তিনি।যার পাশে দাঁড়ানোর মত কেউ ছিল না তার পাশে।

সে একজন অস্বচ্ছ গরীব মহিলা টাকার জন্য তিনি চিকিৎসা করাতে পারছিলেন না তার জীবন প্রায় অকেজো অবস্থায় ছিল।তিনি গত ৩০ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়া যমুনা হাসপাতালে ভর্তি ছিল,এত ব্যয় বহুল খরচে অর্থোপেডিক্স সার্জারী করা তার পরিবারের পক্ষে সম্ভব ছিল না।

যমুনা হাসপাতালের পরিচালক জুলফিকার আলীর অনুরোধে তার অপারেশনের দ্বায়িত্ব নিয়েছেন অর্থোপেডিক্স ডাক্তার মোঃ সোলায়মান এবং এনেস্থিসিয়া ডাক্তার সৈয়দ আরিফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য -সে একজন ভিক্ষুক রোগীর বয়স অনেক বেশি হওয়ায় কেউ এই অপারেশন করতে রাজি নন কারন তিনি শারীরিক ভাবে অনেক দুর্বল পরে পরিচালকের বিশেষ অনুরোধে মানবিক কাজ করতে রাজি হোন এই দুজন মানবিক ডাক্তার।যাদের সহায়তায় প্রাণ ফিরে পেলো এই বৃদ্ধা মহিলাটি।

করুন এই অবস্থায় এই অসহায় বৃদ্ধা মহিলাটির পাশে দাঁড়িয়ে নজর স্থাপন করলেন এই চিকিৎসকরা। ডাক্তারের সাথে কথা বলে জানা যায়-রুগী বর্তমানে অনেক টা সুস্থ্য আছে অপারেশনের সময় দুই ব্যাগ রক্ত দিতে হয়েছে।ডাক্তার রা বলেন আমরা এমন একটি মানবিক কাজ করতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

এই গরীব বৃদ্ধা মহিলাটির পাশে আরো অনেকে ই সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বলে জানান যমুনা হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জুলফিকার আলী।

তিনিও জানান সবাইকে নিয়ে এমন একটি মহতী কাজ করতে পেরে আমিও নিজেকে গর্বিত মনে করছি। বিশেষ করে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি দুই জন মানবিক এই ডাক্তারদের যাদের সহায়তায় ফিরে পেল বৃদ্ধা মহিলার প্রাণ টি। আসুন আমরা সবাই এমন অসহায় হত দরিদ্র রোগীদের পাশে দাঁড়ায় তাহলে আমাদের জন্য বেচেঁ যেতে পারে একটি প্রাণ।

  • 51
    Shares
  • 51
    Shares