671 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

মৌলভীবাজারে আলোচিত ও ”চাঞ্চল্যকর রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই 

  • 28
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    28
    Shares
মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরীঃ মৌলভীবাজার শহরের বহুল আলোচিত ও ”চাঞ্চল্যকর রাজন আহমেদ রাজা হত্যার প্রধান আসামী আজাদ আহমেদ পীর আজাদকে মৌলভীবাজার পিবিআই গ্রেপ্তার করেছে।
মৌলভীবাজার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, মৌলভীবাজার শহরের কুসুমবাগ-বড়হাট এলাকার আধিপত্য নিয়ে রাজন আহমেদ রাজা গ্রুপের সাথে পীর আজাদ বাহিনীর পূর্ব বিরোধ ছিল। গত ২১ জানুয়ারি ২০২০ইং তারিখ  সকাল সাড়ে ৮ টার সময় রাজন তার দরগা মহল্লা ভাড়াটিয়া বাসা হতে সিএনজি যোগে তার গ্রামের বাড়ী বুদ্ধিমন্ত পুর যাওয়ার পথে ওইদিন সকাল প্রায় ৯ ঘটিকায় শহরতলীর শ্রীরাইনগর নুরুল কোরান মাদ্রাসা ও খেয়াখাটের সামনে রাস্তায় পৌছালে ১৫/২০জন আসামী জোরপূর্বক তাকে ধরে মারপিট করে পীর বাহিনী প্রধান পীর আজাদের বাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে আসামীগন দা দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরবর্তীতে হাসপাতালে নেওয়ার পর রাজন মৃত্যুবরণ  করে।
পিবিআইয়ের একটি চৌকস দল অভিযান করে সিলেট মহানগর এলাকা থেকে বহুল আলোচিত ও ”চাঞ্চল্যকর রাজন আহমেদ রাজা হত্যার প্রধান আসামী পীর আজাদকে (৩১) কে ৩ জুলাই গ্রেপ্তার করে। পীর আজাদ সদর উপজেলার হিলালপুর গ্রামের মৃত ছইদ উল্লাহ এর পুত্র।
নিহতের স্ত্রী সাকি বেগম বাদী হয়ে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় ২০ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করে ও ৭/৮জন অজ্ঞাতনামা আসামীর বিরুদ্ধে মামলা নং-১৭, গত ২২ জানুয়ারি ২০২০ইং তারিখে ধারা-৩৬৪/৩০২/২০১/৩৪ দায়ের করেন।
মামলাটি মৌলভীবাজার সদর মডেল থানায় রুজুর পর তদন্তাধীন থাকাবস্থায় পিবিআই, মৌলভীবাজার মামলাটি অধিগ্রহন করে।
পিবিআই মৌলভীবাজার জেলা ইউনিট ইনচার্জ পুলিশ সুপার মোঃ আবু ইউসুফ জানান, ডিআইজি পিবিআই, বনজ কুমার মজুমদার বিপিএম (বার), এর সঠিক তত্ত্বাবধান ও দিক নির্দেশনায় আলোচিত ও ”চাঞ্চল্যকর রাজন হত্যার প্রধান আসামী পীর আজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলাটির তদন্তকারী অফিসার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মোঃ হাসানুজ্জামান তদন্ত করেন।
পিবিআই মামলাটি অধিগ্রহনের পর তথ্য প্রযুক্তি ও সোর্সের মাধ্যমে প্রধান আসামী পীর আজাদকে গ্রেফতারের জন্য একাধিক অভিযান পরিচালনা করা হয়। গ্রেফতার পরবর্তী উক্ত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যায়। ৪ জুলাই আদালতের মাধ্যমে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।
Attachments area
  • 28
    Shares