66 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

রণদীপের একটি পুরনো ভিডিও নেটদুনিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বলিউডের একজন ভিন্নধর্মী অভিনেতা রণদীপ হুদা। নিজেকে ভিন্ন চরিত্রকে তুলে ধরে অভিনয়ে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। অভিনয় ছাড়াও জাতিসংঘের একটি বিশেষ পদে নিয়োজিত ছিলেন তিনি। কনভারসেশন ফর মাইগ্রেটরি স্পেসিজ অব ওয়াইল্ড অ্যানিমেলস বিভাগের দূত হিসেবে কাজ করতেন রণদীপ। তবে এই পদ হারাতে হচ্ছে অভিনেতাকে।

সম্প্রতি রণদীপের একটি পুরনো ভিডিও নেটদুনিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। ভিডিওটি ২০১২ সালের, যেখানে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী সম্পর্কে খারাপ মন্তব্য করছিলেন রণদীপ। ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল তৈরি হয় নেটদুনিয়ায়। বলিউড অভিনেতাকে গ্রেপ্তারের দাবি তোলেছেন অনেকে। এরপরই রাষ্ট্রসংঘের দূতের পদ থেকে অপসারণ করা হয় রণদীপ হুদাকে।

অভিনেতাকে দূতের পদ থেকে সরানোর খবর নিশ্চিত করেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের এক কর্মকর্তা। তার কথা অনুযায়ী, রণদীপের এমন মন্তব্য নীতিগতভাবে রাষ্ট্রসংঘ বিরোধী। বর্ণবিদ্বেষী, লিঙ্গবৈষম্যকে সংগঠন সমর্থন করে না। পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ২০১২ সালের ওই ভিডিও সম্পর্কে অবগত ছিল না সংগঠন, তাই ২০২০ সালে তাকে মাইগ্রেটরি স্পেসিজ অব ওয়াইল্ড অ্যানিমেলসের দূত হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছিল।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি আলোচনা সভায় রণদীপ হুদা বলছেন ‘এবার আমি একটি অশ্লীল ঠাট্টা করব।’ তারপরেই তিনি নাম নেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিএসপি দলের নেত্রী মায়াবতীর। তারপর তিনি যে কথাগুলো বলেন তা অত্যন্ত কুরুচিকর বলেই দাবি করা হয়েছে। দেখা যায়, তার ঠাট্টা শেষ হতেই শ্রোতা ও দর্শকরা হেসে