1016 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

লক ডাউনের প্রথম দিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্বিক অবস্থা

রাবেয়া জাহান: দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণের হার বাড়ছে প্রতিদিনই, সেই সাথে বাড়ছে মৃত্যুর হারও । এই অবস্থায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা , তার মন্ত্রিসভা এবং বিশেষজ্ঞদের সাথে পরামর্শ করে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে এক সপ্তাহের জন্য লক ডাউন ঘোষণা করেন্ । লক ডাউনে অফিস আদালত খোলা । সব ধরনের সড়ক পরিবহন  , নৌযান এবং আকাশ পরিবহন  বন্ধ ঘোষনা করা হয়। কিন্ত ব্রাহ্মনবাড়িয়ার সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় রিকসা, অটোরিকশা , সিএনজি সবই চলাচল করছে। রাস্তায় জনসমাগম ও যথেষ্ঠ ছিলো।

এই এক বছরে করোনা ভাইরাস যতোটা না জীবন কেড়েছে , তার চেয়ে বেশি বিকলাঙ্গ করে দিয়েছে দেশের অর্থনীতির চাকা। বিশেষ করে এই লক ডাউনে দিন মজুর ,এবং ছোট খাটো ব্যবসায়ীরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। আসলে , সার্বিকভাবে প্রতিটি পেশার মানুষ প্রতক্ষ্য এবং পরোক্ষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে । তাই, সার্বিকভাবে মানুষ এখন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। উপরন্তু , দেশের অস্থির অবস্থা , কিছু মানুষকে বিদ্রোহী হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে।

তবে, যে হারে করোণা সংক্রমণ বাড়ছে, এই লক ডাউনের কোনো বিকল্প ও ছিল না। জণগণের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা করোণা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে লক ডাউনের পক্ষাপতী নয়, তাদের ভাষ্য মতে , এই লক ডাউন সাধারণ মানুষের জীবনকে নিঃস্ব করে দিচ্ছে। তাই লক ডাউন না দিয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করলে মানুষ অন্তত না খেয়ে মরবে   না বলে সাধারণ মানুষের বিশ্বাস। লক ডাউনের প্রথম দিনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সার্বিক অবস্থা

[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]