767 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

লাকসামে চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় গৃহবধুকে খুন করেছে দূর্বৃত্তরা

লাকসামে চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় গৃহবধুকে খুন করেছে দূর্বৃত্তরা

মশিউর রহমান সেলিম, লাকসামঃ  কুমিল্লার লাকসাম পৌর এলাকার ৫নং ওয়ার্ড ঠাকুরপাড়া এলাকার একটি বাড়ীতে চুরির ঘটনা দেখে ফেলার কারনে সোমবার রাতে ওই বাড়ীর শুকলা রানী আচার্য্য (৫৫) নামে এক গৃহবধুকে খুন করে মালামাল নিয়ে পালিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা।

স্থানীয় লোকজন ও নিহত শুকলা রানীর স্বামী স্বপন আচার্য্য জানায়, প্রতিদিনের মতো আমি ও আমার ছেলে প্রবীর আচার্য্য সহ ওইদিন দোকান বন্ধ করে রাত প্রায় সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ীতে গিয়ে বসত ঘরের দরজা ধাক্কা দিলে কোন শব্দ না পেয়ে স্ত্রী শুকলাকে ডাকতে থাকি। কিন্তু অনেকক্ষন ডাকাডাকির পর সামনে দরজাটি না খোলায় আমরা পিতা-পুত্র ওই ঘরের পিছনের দরজায় গিয়ে ধাক্কা দিতেই খুলে যায়। ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে আমার স্ত্রী শুকলা রানীর রক্তমাখা শরীর, গলায় রশি বাঁধা অবস্থায় খাটের উপর পড়ে থাকা এবং পুরো ঘরের রুমগুলো এলোমেলো দেখতে পেয়েই চিৎকার দিলে. আশে পাশের লোকজন ছুটে আসে।

আমরা ধারনা করছি ষ্টীলের আলমিরা ও সুকেইচের ড্রয়ারের তালা ভাঙ্গা দেখে বুঝতে পারলাম নগদ টাকা, স্বর্নলংকারসহ প্রায় ৬/৭ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যাওয়ার সময় আমার স্ত্রী শুকলা তাদেরকে চিনতে পারায় তাৎক্ষনিক তার গলায় রশি পেচিয়ে হত্যা করার পর ঘরের পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ এসে গৃহবধু শুকলা রানীর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে আমরা লাকসাম থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মন্সুর আহমেদ মুন্সি জানায়, বিভিন্ন মাধ্যমে ঠাকুর পাড়া এলাকায় গৃহবধুর হত্যার খবর শুনে তাৎক্ষনিক থানা পুলিশকে ফোন দেই এবং ঘটনাস্থলে গিয়ে বিস্তারিত অবগত হই। থানা পুলিশ ওই গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে লাকসাম থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন জানায়, গৃহবধু হত্যার খবর শুনে তাৎক্ষনিক আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মঙ্গলবার সকালে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছি। ক্ষতিগ্রস্থদের অভিযোগ ও ময়না তদন্তের রিপোর্ট প্রাপ্তি এবং তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

[Sassy_Social_Share total_shares="ON"]