160 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

লাকসাম-মনোহরগঞ্জে পেশাজীবিদের সাথে মতবিনিময় সরকারের নানানমুখী উন্নয়নে গ্রামাঞ্চল এখন শহরে রূপ নিচ্ছে —-স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মশিউর রহমান সেলিম, কুমিল্লা
সমাজে ন্যায় বিচার ও সু-শাসন প্রতিষ্ঠার আহবান জানিয়ে সরকারের স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন সকলের উপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করতে হবে তাহলেই দ্রুত সময়ের মধ্যে এ অঞ্চলের সামগ্রীক উন্নয়ন বাস্তবায়ন করা যাবে। যারা দলীয় সিদ্ধান্ত এবং শীর্ষ নেতৃবৃন্দের কথা অমান্য করবে তাদেরকে কোন অবস্থায় ছাড় দেয়া হবে না। আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দল যাকে মনোনয়ন দিবে সকল নেতাকর্মীকে তার পক্ষে কাজ করতে হবে।

সরকারের নানানমুখী উন্নয়নে এ অঞ্চলের গ্রামাঞ্চল এখন শহরে রূপ নিচ্ছে। তিনি সোমবার বিকেলে মনোহরগঞ্জের পোমগাঁও এবং সন্ধ্যায় লাকসাম পৌরশহরের বড়তুপা গ্রামের বাসভবনে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি, পেশাজীবি সংগঠন ও দলীয় শীর্ষনেতাদের সাথে পৃথক পৃথক মতবিনিময় কালে বলেন, এলাকার উন্নয়নে চাহিদা অনুযায়ী নানান প্রকল্প হাতে নেয়ায় লাকসাম-মনোহরগঞ্জ উপজেলা ধীরে ধীরে গ্রাম থেকে শহরের আধুনিকতার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। আমাদের এ সরকার সাধারণ মানুষের কল্যাণ ও এলাকা উন্নয়নে বিশ্ববাসী। আর এ উন্নয়নে গ্রামাঞ্চলকে বেশি প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।

প্রতিটি গ্রামে অবকাঠামো উন্নয়ন, ড্রেন, কালভার্ট, ব্রিজ, কাঁচা-পাঁকা সড়ক নির্মাণ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন নানানমুখী উন্নয়ন কাজ চলছে। এতে বোঝা যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষের কল্যাণ এবং উন্নয়নের জন্য কতোটা আন্তরিক।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ওইদিনের কর্মসূচী সফল করতে লাকসাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউনুছ ভুঁইয়া, পৌর মেয়র অধ্যাপক মোঃ আবুল খায়ের, উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.কে.এম সাইফুল আলম, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ার‌্যান মহব্বত আলী এবং মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম ও উন্নয়ন সমন্বয়কারী মোঃ কামাল হোসেনসহ স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়,
জেলা-উপজেলা বিভিন্ন সেক্টরের কর্মকর্তা এবং দলীয় সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী সোমবার দুপুরে লালমাই-মুদাফরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়ক হয়ে মুদাফরগঞ্জ- রেল চিতোষী-শান্তিরবাজার সড়ক দিয়ে মনোহরগঞ্জের গ্রামের বাড়ী পোমগাঁও যাওয়ার পথে ওইসড়কগুলোর দু’পাশে অবস্থান করা হাজার হাজার নেতাকর্মী এবং ওইদিন বিকেলে মনোহরগঞ্জ থেকে লাকসামের পথে রওনা দিলে লাকসাম- মনোহরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কে গোবিন্দপুর ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম গাজীরপাড় বাজার ও মোহাম্মদপুর ঈদগাহের সামনে, লাকসাম পৌর প্যানেল মেয়র-২ পৌর ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহজাহান মজুমদার, গাজীমুড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে, ৯নং পৌর কাউন্সিলর গোলাম রাব্বানী ও ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব খোরশেদ আলম ফতেপুর ব্রীজ

, ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সির দেলোয়ার হোসেন, জগন্নাথদীঘির পশ্চিমপাড়, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল আজিজ নোয়াখালী রেলগেইট, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুনছুর আহমেদ মুন্সি, সদররোডের শাহারিয়ার মোড়, ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবু ছায়েদ বাচ্চু, পুরাতন বাস টার্মিনাল মোড়, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এড. মাসুদ হাসান চাঁদপুর রেলগেইট, ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ উল্যাহ জংশন বাজার বাস ষ্টপিজ মোড়, রেলওয়ে শ্রমিকলীগ কেন্দ্রীয় নেতা হাছান আহমেদ পলাশ রেলওয়ে ক্রসিং মোড় ও প্যানেল মেয়র-১ পৌর ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খলিলুর রহমান রেলওয়ে উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ে হাজার হাজার নেতাকর্মী নিয়ে পৃথক পৃথক ভাবে ওই সড়কের দু’পাশে নানাহ প্লেকার্ড, ব্যানার ফেষ্টুন নিয়ে স্লোগান আর স্লোগানে মুখরিত করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলামকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।