753 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

লায়ন ফিরোজুর রহমান ওলিও কে নিয়ে বিভ্রান্তিকর লাইভ ভিডিও : ঘটনার ইন্ধন দাতা কে?

  • 171
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    171
    Shares

পথিক রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও তার পরিবারের বিরুদেধ এক সংখ্যালুগু হিন্দু ব্যক্তির  ফেসবুকে বিভ্রান্তিকর লাইভ  ভিডিও নিয়ে সোস্যাল মিডিয়া চলছে সমালোচনার ঝড়। কেউ কেউ বলছে এ ঘটনা কি  আবার নাসিরনগরের মতো কোন ঘটনার সুত্রপাত করবে কি না?

গত দু তিনদিন যাবত ফেসবুকে সাধন চৌধুরীর লাইভ ভিডিও নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে অসংখ্য পোষ্ট দেখা যাচ্ছে। যা সচেতন মহলকে ভাবিয়ে তুলেছে। সংখ্যালুগু সাধন চৌধুরীকে  ব্যবহার করে কোন অসাধু ব্যক্তি কি কোন রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চাচ্ছে ? এমন প্রশ্নই সুলতানপুর বাসীর মুখে মুখে।

আসসালামু আলাইকুম।প্রিয় ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী আপনারা মোটামুটি সবাই জানেন যে একটি হিন্দু ছেলে নাম হচ্ছে সাধন চৌধুরী।আমাদের উপজেলার চেয়ারম্যান কে নিয়ে খারাপ একটি ভিডিও বানান ।সাধন চৌধুরী কেন এরকম করছে।এবং কোন উদ্দেশ্যে করছে। এই নিয়ে আমাদের Shawun Bhuiyan সত্যটা তুলে ধরেছে ।আশা করি ভিডিওটি আপনারা শেষ পর্যন্ত দেখবেন।

Posted by Pince Refat Hossain on Thursday, September 17, 2020

এ বিষয়ে বৃস্প্রতিবার শাওন ভুইয়া নামে এক ব্যক্তি একটি ভিডিও পোষ্ট করেন, সেখানে সে বলে সাধন চৌধুরী এলাকার চিহিৃত বকাটে ছেলে। এক সময় ওলিও পরিবারের সাথে থেকে টাকা পয়সা নিয়ে সংসার চালাতো। এখন বাজারে বসে এমন ভাব করে যেন সে এলকার বড় কেউ হয়ে গেছে। মানুষকে তার চোখে মানুষ লাগে না। কিছু দিন সে ওলিও সাহেবের ক্ষমতা ব্যবহার করে কৃপানাথ নামের এক ব্যক্তির মেয়েকে সে নিয়মিত উক্তক্ত করতো। বিষয়ে লায়ন ফিরোজুর রহমান শুনতে পেয়ে সাধন কে শ্বাসন করে। মূলত কি এ কারনেই সাধন লায়ন ফিরোজুর রহমান ওলিও কে নিয়ে এমন বিভ্রান্তিকর পোষ্ট দেয়। যদি ঘটনা এমনটা না হয়ে থাকে তাহলে এমন এক শ্রেণীর লোক আছে যারা সাধনকে ব্যবহার করে  সুলতানপুরের হিন্দু মুসলিমদের মাঝে এক ধরনের ধাঙ্গা তৈরি করতে চাচ্ছে। এ বিষয়ে সকলকে সচেতন থাকা দরকার।

এ বিষয়ে লায়ন ফিরোজুর রহমানও ওলিওর বড় ছেলে ১১ নং সুলতান পুর ইউপির চেয়াম্যান লায়ন শেখ ওমর ফারুক বলেন, সাধনের এ লাইভ ভিডিওর পিছনে কাজ করছে অন্য এক শ্রেনীর লোক যারা গত নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আমার এবং আমার পরিবারের বিরুদ্ধে তারা এমন অপ্রচার পরিচালনা করছে। সাধনের পিছনে থেকে ইন্দন দিয়ে যারা এমন খারাপ কাজ করাচ্ছে তাদের বিচারের আওতায় আনা প্রয়োজন। সাধন মুলত সোহরাব খান ও শেখ মুহসিনের খারাপ এজেন্টা বাস্তবায়ন কাজ করছে ।আপনরা এসব ভিডিওতে বিভ্রান্ত হবেন না।

ফেসবুকের এমন অপ্রচার নিয়ে বিভ্রান্তির মধ্যে আছে সাধারণ মানুষ।বিষয়টি আইনগত ভাবে সুন্দর সমাপ্তি হবে এমনটাই আশা করছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সচেতন মহল।

  • 171
    Shares
  • 171
    Shares