280 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ঘন কুয়াশার কারণে শনিবার রাত ২টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত প্রায় ৭ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ রাখতে হয়। পরে সকাল সোয়া ৯ টার দিকে যানবাহন নিয়ে একটি ফেরি শিমুলিয়া ঘাট থেকে বাংলাবাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি।

বিআইডব্লিউটিসির সহকারী মহাব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শফিকুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত ২টা থেকে কুয়াশার পরিমাণ বেড়ে গেলে নৌরুটের এক ফুট অদূরে দিক বিকন নির্দেশনামূলক বয়া বাতি অস্পষ্ট হয়ে আসে। এ সময় পদ্মানদীতে দিকনির্ণয়ে ব্যর্থ হয় ফেরি চালকরা। দুর্ঘটনা এড়াতে মধ্যরাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখে।

তিনি আরো জানান, কুয়াশার মধ্যে প্রতিদিনই ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ৪ থেকে ৫টি ফেরি মাঝ নদীতে নোঙ্গর করে রাখতে হয়। তবে রো রো ফেরি কুয়াশার মধ্যে চলাচল করতে সক্ষম হয়।

এদিকে ঘন কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে মাঝপদ্মার একাধিক পয়েন্টে পণ্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহী যানাহন নিয়ে ৪টি ফেরি নোঙর করে রাখা হয়। এতে করে শিমুলিয়া ফেরীঘাটে প্রায় বিপুল সংখ্যক যানবাহন পারপারের অপেক্ষায় থাকায় প্রচণ্ড শীতের মধ্যে নৌরুটের মাঝপদ্মায় ও ঘাটে ঘাটে চরম দুর্ভোগে পড়েন দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীরা।