400 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

সাধারণ মানুষের কল্যাণে আসিফ ইকবাল খোকন

  • 27
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    27
    Shares

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইলের অরুয়াইল – সরাইল রাস্তার ৩ কিলোমিটার নাজেহাল রাস্তার সংস্কারের দাবীতে দুই সন্তান নিয়ে মানব বন্ধন করে বিভিন্ন টিভি চেনেলসহ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় নিউজ কভার করে এলাকায় আলোরন সৃষ্টি করেন শিক্ষক আসিফ ইকবাল খোকন। ছাত্র জীবনেই অরুয়াইল আব্দুস সাত্তার ডিগ্রি কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় অধ্যক্ষকে কখনও অনুরুধ করে আবার কখন চাপের মুখে বহু গরীব ছাত্র ছাত্রীর ফরম ফিলাপের টাকা মওকুফ করে নামে নামে মাত্র টাকায় ফরম ফিলাপ করিয়েছেন।ভর্তি ক্ষেত্রে ও দিয়েছেন নানা সুবিধা। অসহায় মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়ানো আর জন সমস্যা কর্তৃপক্ষের নজরে আনার এক বিরল দৃষ্টান্ত আসিফ ইকবাল খোকন। চারদিকে নদী বেষ্টিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার বিচ্ছিন্ন একটি ইউনিয়ন অরুয়াইল। তিতাস নদীর কুল ঘেঁষে অবস্থান এ ইউনিয়নে প্রায় ৪০ হাজার লোকের বসবাস। বর্ষা মৌসুমে ভরা বন্যার সময় তাদের চলাচলের বাহন নৌকা । বাকী সময় ধূধূ বালু চর আর মেঠো পথে পায়ে হেটে চলা তাদের নিত্য সঙ্গী। এমনই জীবন বৈচিত্রে মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন অত্র ইউনিয়নের শিক্ষক আসিফ ইকবাল খোকন। প্রায় দশ বছর ধরে মানব সেবায় স্বেচ্ছাশ্রমে নিয়োজিত রেখেছেন নিজেকে। তিনি কাজের মাধ্যমেই ব্যাপক পরিচিত ও ভালবাসা অর্জন করেছেন ভাটি অঞ্চল খ্যাত অরুয়াইলের মানুষের। আসিফ ইকবাল খোকন অরুয়াইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন। সুবিধাবঞ্চিত এই ভাটি অঞ্চলে বসবাসরত সাধারণ মানুষের যে কোন কাজে ও সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসেন এই নিরলশ মানুষ টি। গ্রামের অসচেতন মানুষ কে জন্ম নিবন্ধন করতে ফরম ফিলাপসহ প্রয়োজনীয় কাগজ প্রস্তুত করে ইউনিয়ন পরিষদে নিজে দৌড়া দৌড়ি করে কাগজ তৈরি করতে সাহায্য করছেন। নতুন করে ভোটা আইডি কার্ড করতে ফরম ফিলামসহ প্রয়োজনীয় কাগজ রেডি করে নতুন ভোটার, স্থানান্তর ও সংশোধন করে পরামর্শসহ সহযোগিতা করে আসছেন এই নিঃস্বার্থ ব্যাক্তটি। সরালের রাজাপুর কাকরিয়া গ্রামের অনেক অসহায় জেলে পরিবারকে উপজেলা মৎস অফিসের মাধ্যমে সেলাই মিশিনের ব্যাবস্থা করে দিয়েছেন।গ্রামের অসহায় মানুষ কে বিভিন্ন ব্যাংক ও এনজিও থেকে ঋন গ্রহণের ব্যাবস্সা করতে সহযোগিতা করা, বিভিন্ন ব্যাংকে একাউন্ট করতে প্রয়োজনীয় কাগজ প্রস্তুত করে কাজ সমাধান করে দিচ্ছে। সকল প্রকার লোভ লালসার উর্ধ্বে, কোন প্রকার স্বার্থ ছাড়া এ সেবা প্রদান করে আসছেন। করোনাকালীন এই দু:সময়ে এই মানুষটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজারে মাস্ক বিতরণ ও মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মাস্ক পরা, সামাজিক দুরত্ব বজায়, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা, সেনিটাইজার ব্যাবস্থা নিশ্চিত করাসহ নানাবিধ পরামর্শ প্রদান করে আসছেন। গ্রামের মানুষজনকে নানাভাবে স্বাস্থ্য সচেতনতায় উদ্বুদ্ধ করছেন। করোনার ভ্যাকসিন নিতে অনাগ্রহী গ্রামের হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষগুলোকে বিনা মূল্যে নিজ উদ্যোগে করে দিচ্ছেন ভ্যাকসিন রেজিস্ট্রেশন। শুধু তাই নয় প্রতিদিন শত-সহস্র মানুষকে নিজ হাতে পরিয়ে দিচ্ছেন মাস্ক এবং উদ্বুদ্ধ করছেন স্বাস্থ্য সচেতনায়। তার নেয়া এ অভিনব উদ্যোগের ফলে গ্রামের মানুষজন এখন অনেকটাই সচেতন হয়ে উঠছেন। জাতির এ দুঃসময়ে এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। নিরবধি উপকারী মনের মানুষ আসিফ ইকবাল খোকন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার অরুয়াই গ্রামে ১৯৮২ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা সাহের উদ্দিন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। ৭১’এ তার পিতা জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন দেশের জন্য, আর সন্তান হিসেবে তিনি যুদ্ধ করছেন মহামারী করোনার ভয়াল থাবা থেকে দেশ ও জাতিকে নিরাপদ রাখার জন্য। শিক্ষক আসিফ ইকবাল খোকন বলেন, মানুষ মানুষের জন্য, দুনিয়াটা স্বল্প সময়ের জন্য। মানুষের কষ্ট দুর হলে আমি শান্তি পাই। মানুষের ভালবাসা পাই এটাই আমার শান্তনা।আমৃত্যু মানুষের জন কাজ করতে চাই।

  • 27
    Shares