517 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

হিজরি নববর্ষ বরণে ১ মহররম সাধারণ ছুটি দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান।

  • 361
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    361
    Shares

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলামঃ-

হিজরি নববর্ষ বরণের লক্ষ্যে ১ মহররম সাধারণ ছুটির ঘোষণার দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। স্মারকলিপিটি হিজরি নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে অদ্য ১৯ আগস্ট বুধবার প্রেরণ করা হয়। পহেলা বৈশাখে “বাংলা নববর্ষ” উদযাপনে চট্টগ্রামের ডিসি হিলকে যেভাবে উন্মুক্ত করে দেয়া হয়, ঠিক সেভাবে হিজরি নববর্ষ উদযাপনের জন্য ডিসি হিলকে উন্মুক্ত করে দিতে স্মারকলিপিতে আবেদন করা হয়।

স্মারকলিপিতে মাদকের আগ্রাসন থেকে যুব সমাজকে বাঁচাতে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ, সাইবার ক্রাইম, পর্নোগ্রাফি ও নগ্ন আকাশ সংস্কৃতি থামাতে আইনগত পদক্ষেপ নেয়াসহ নানা দাবি তুলে ধরা হয়েছে। হিজরি নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদের চেয়ারম্যান পীরজাদা মাওলানা মুহাম্মদ গোলামুর রহমান আশরফ শাহ্ ও মহাসচিব মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকীর নেতৃত্বে স্মারকলিপি প্রদানকালে পরিষদের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন মাহমুদ, যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ শফিউল আলম, সহ-দপ্তর সচিব আলমগীর ইসলাম বঈদী, সাংস্কৃতিক সচিব মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরী ও নির্বাহী সদস্য নুর রায়হান চৌধুরী প্রমুখ।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যমন্ডিত হিজরি সনকে ঘিরে মুসলমানদের আচার অনুষ্ঠান ও বিভিন্ন উৎসব পালিত হয়। মুসলমানদের প্রাত্যহিক জীবনধারার সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে মিশে আছে হিজরি সন ও হিজরি তারিখ। মধ্যপ্রাচ্যসহ অনেক মুসলিম দেশে ১ মহররম হিজরি নববর্ষে সরকারি সাধারণ ছুটি পালিত হয়। তা বাংলাদেশেও অনুসৃত হতে পারে। হিজরি সনের বৈশিষ্ট্য হচ্ছে তা সকল ঋতুকে ঘিরে আবর্তিত হয়। নির্দিষ্ট ঋতুতে তা সীমাবদ্ধ থাকে না। ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.), ঈদে মেরাজুন্নবী (দ.), শবে কদর, শবে বরাত, আশুরাসহ সকল আচার উৎসব হিজরি সন, চান্দ্র মাস ও তারিখ অনুযায়ী উদ্যাপন করে থাকেন মুসলমানরা।

তাই হিজরি সনকে কোনোভাবে উপেক্ষা করা যায় না। এ জন্য ১ মহররম হিজরি নববর্ষে সরকারি সাধারণ ছুটি ঘোষণা দেয়া দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানদের প্রাণের দাবি। স্মারকলিপিতে মাদক নির্মূলের আড়ালে চলমান বিচারবহির্ভূত হত্যা থামানোসহ সকল ধরনের অপরাধীকে আইনের আওতায় আনতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন স্মারকলিপিটি গ্রহণ করে তা যথাযথ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে পেশ করার আশ্বাস দেন। এ সময় হিজরি নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০ আগস্ট বৃহস্পতিবার হিজরি নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে একই দাবিতে প্রতিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হবে।

  • 361
    Shares
  • 361
    Shares