184 বার দেখা হয়েছে বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

১৪ বছরের বিরতি ভেঙে তিশা– অপূর্ব

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পথিক রিপোর্ট: নুসরাত ইমরোজ তিশা ও জিয়াউল ফারুক অপূর্ব জুটিকে দর্শক পাচ্ছেন এবারের ‘ঈদ উপহার’ হিসেবে

নুসরাত ইমরোজ তিশা ও জিয়াউল ফারুক অপূর্ব জুটিকে দর্শক পাচ্ছেন এবারের ‘ঈদ উপহার’ হিসেবেফেসবুক থেকে

তাঁরা ছিলেন টেলিভিশন নাটকের জনপ্রিয় জুটি। একসঙ্গে অভিনয় করেছেন বহু নাটকে। তবু দীর্ঘ ১৪ বছর একসঙ্গে পর্দায় দেখা যায়নি তাঁদের। সেই দীর্ঘ বিরতি ভেঙে ফের এক ফ্রেমে দাঁড়ালেন তাঁরা। নুসরাত ইমরোজ তিশা ও জিয়াউল ফারুক অপূর্ব জুটিকে দর্শক পাচ্ছেন এবারের ‘ঈদ উপহার’ হিসেবে।

তাঁরা একসঙ্গে কাজ করেছেন বিধবা, জিরো, ভালোবাসি ভালোবাসি, মেঘবালিকা, প্রোডাকশন নম্বর ৮, কারে ভালোবাসো তুমিসহ অনেকগুলো নাটকে। নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের দ্য রেইন নাটকে তাঁদের সর্বশেষ একসঙ্গে দেখা যায়। তারপর কেটে গেছে এক যুগের বেশি। ২০০৬ বা ২০০৭ সালে নাটকটি প্রচারিত হয়। করোনাকালের ঈদের কাজ করলেন তাঁরা।

তিশা জানান, প্রতিবছরের তুলনায় এবার তাঁকে কম নাটকে দেখা যাবে। করোনার কারণে অনেক নাটকের শিডিউল বাতিল করেছেন। তবে ভক্তরা হতাশ হবেন না, ঈদে পাঁচটি নাটকে দেখা যেতে পারে তাঁকে। সেসবের দুটিতে তিশা আসবেন অপূর্বর জুটি হয়ে।

তিশা বলেন, ‘আমি আশাবাদী একজন মানুষ। আগে কেন আমরা কাজ করিনি, আমাদের মধ্যে কী হয়েছিল, সেগুলো নিয়ে ভাবতে চাই না। আমি ভালো কাজ করতে চাই। অতীতের চেয়ে আমি ভবিষ্যৎকে বেশি প্রাধান্য দিই। আমরা এবার ঈদে একসঙ্গে দুটি নাটকে অভিনয় করছি। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

 

 

গত শনিবার তিশা ও অপূর্ব দাঁড়ান ক্যামেরার সামনে। নাটকের নাম বউয়ের কথায় চলে, পরিচালনা করছেন শিহাব শাহীন। নাটকে অপূর্বর স্ত্রীর চরিত্রে থাকবেন তিশা। বাস্তব জীবনে তিশার কথামতো চলেন তাঁর স্বামী নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী? তিশা জানান, তাঁদের মধ্যে কখনো প্রভাব খাটানোর ব্যাপার ঘটেনি। এই অভিনেত্রী বলেন, ‘মাঝে মাঝে বউয়ের কথায় চলা ভালো। তাতে সংসার সুখের হয়। তবে পরিবারের অনেকেই আমার কথায় চলে। আমি আমার পরিবারকে সুখী ও সুস্থ রাখতে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নিই। তারাও আমাকে প্রায়োরিটি দেয়।’

এত দিন কেন কাজ করা হয়নি? অপূর্ব জানালেন, সেসব মনে করতে চান না তিনি। এটুকুই বললেন, ‘আমরা দুদিন ধরে শুটিং করছি, মনেই হচ্ছে না এত বছর পর কাজ করছি। দুজনের মধ্যে কোনো আড়ষ্টতা নেই। দারুণ আনন্দ নিয়ে কাজ করছি।’

একসঙ্গে অভিনয় করা না হলেও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা–সাক্ষাৎ হতো তিশা ও অপূর্বর। তিশার উপস্থাপনায় সর্বশেষ একটি গেম শোতে অতিথিও হয়েছিলেন অপূর্ব। এত দিন পর তিশার সঙ্গে নাটকে অভিনয়, যা দর্শকের দীর্ঘদিনের একটা অক্ষেপ ঘোচাতে যাচ্ছে বলেও মনে করছেন নাটক সংশ্লিষ্ট কেউ কেউ। এ প্রসঙ্গ অপূর্ব বলেন, ‘এটা বলা মুশকিল। তবে আমরা দুজন মন দিয়ে কাজটা করছি। দর্শকের আক্ষেপ থাকলে কিছুটা হলেও তা ঘুচতে পারে।’

টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রিতে নাটক নিয়ে নানা সংকট আছে। তবে তিশার কথা, যে সুযোগ আছে, তা পরিপূর্ণভাবে কাজে লাগালে আরও ভালো কাজ করা যাবে। তিনি বলেন, ‘নাটকের ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে আমি সব সময়ই পজিটিভ। এখনো ভালো গল্প হচ্ছে, কিছু সংকট আছে।

আশার কথা হলো, আমাদের তরুণেরা ভালো কাজ করছেন। এটা অবশ্যই বলব, বাংলাদেশ এবং ভারতে আমাদের নাটকের দর্শক অনেক বেড়েছে।’

এদিকে খবর রটেছে, লম্বা বিরতির পর তিশা আর অপূর্বকে শুধু এই একটি নাটকে নয়, আরও অনেক নাটকে তাঁদের অভিনয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। কয়েকজন পরিচালক তাঁদের নিয়ে আবার নাটক ও টেলিছবির গল্প তৈরির কথা ভাবছেন। সে হিসেবে দুজনকে এবারের ঈদের আরও একটি নাটকে দেখা যেতে পারে।