শুক্রবার টুইটারের অর্ধেক কর্মী ছাঁটাই

শুক্রবার টুইটারের অর্ধেক কর্মী ছাঁটাই করা হয়েছে। ইলন মাস্ক সমস্যাগ্রস্ত কোম্পানিটির নতুন মালিক হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে কর্মী ছাঁটাইয়ের এ উদ্যোগ নেওয়া হলো

খরচ কমানোর লক্ষ্যে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার (৪ নভেম্বর) কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রক্রিয়া শুরু করবে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায়) কর্মচারীদের একটি ই-মেইলের মাধমে বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার কর্মীদের কাছে পাঠানো এক মেইল বার্তায় টুইটার জানিয়েছে, ‘আপনি যদি অফিসে থাকেন অথবা অফিসের পথে রওনা হয়ে থাকেন, তবে দয়া করে বাড়ি ফিরে যান।’ সামাজিক মাধ্যমটি জানায়, টুইটারকে একটি সুস্থ স্বাভাবিক পথে এগিয়ে নেয়ার প্রয়াসে তারা শুক্রবার বিশ্বব্যাপী তাদের কর্মী কমানোর কঠিন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাবে।

প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায়, তারা বিশ্বব্যাপী কার্যালয়গুলো সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেবে এবং সমস্ত প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ স্থগিত করবে, যাতে প্রত্যেক কর্মচারীর পাশাপাশি টুইটার সিস্টেম এবং গ্রাহকের তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়।

টুইটার জানায়, যেসব কর্মীকে ছাঁটাই করা হবে, তাদের ব্যক্তিগত ই-মেইল ঠিকানায় পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে জানিয়ে দেয়া হবে। যাদের ছাঁটাই করা হবে না, তাদের অফিশিয়াল ই-মেইলের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করা হবে।

বুধবার (২ নভেম্বর) ব্লুমবার্গ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, খরচ কমানোর জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটার থেকে অর্ধেক কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করেছেন প্রতিষ্ঠানটির নতুন মালিক ইলন মাস্ক। প্রতিবেদন অনুযায়ী, শুক্রবার ক্ষতিগ্রস্ত কর্মীদের বিষয়টি জানিয়ে দেয়া হবে। বর্তমানে টুইটারে ৭ হাজার ৫০০ কর্মী রয়েছেন। সেই হিসেবে চাকরি হারাবেন প্রায় ৩ হাজার ৭০০ কর্মী।

এদিকে, টুইটারের কিছু কর্মীকে দৈনিক ১২ ঘণ্টা এবং সপ্তাহে ৭ দিন কাজ করার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ইলন মাস্কের নেয়া কঠোর পদক্ষেপের মধ্যে কর্মীদের এই অতিরিক্ত ঘণ্টা কাজ করার নির্দেশনা এলো। এসব কর্মীর বেশির ভাগই প্রকৌশলী বলে জানা গেছে। এ ছাড়া মঙ্গলবার মাস্ক জানিয়েছেন, টুইটার অ্যাকাউন্ট ভেরিফায়েড (ব্লু টিক মার্ক) করতে ব্যবহারকারীকে এখন থেকে মাসে আট ডলার গুনতে হবে।

গত সপ্তাহে ৪৪ বিলিয়ন ডলারে টুইটার কিনে নেন টেসলার প্রধান নির্বাহী ও বিশ্বের শীর্ষ ধনী ইলন মাস্ক। মালিকানা নেয়ার পর মাধ্যমটির ওপর নিজের নিয়ন্ত্রণ জোরদার করা শুরু করেন তিনি।

 

মনির হোসেন / পথিক নিউজ 

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *