প্রাকৃতিক এই অপারসৌন্দয্য

ধরায় এসেছে বসন্ত। সগর্বে গাছে গাছে উঁকি মারছে কচি পাতা। ঝরে পড়ছে শুকনা পাতা। ফুরিয়েছে তাদের প্রয়োজন। রবীন্দ্রনাথ আক্ষেপ করেই বলেছিলেন, ‌‌‘ঝরা পাতা গো, আমি তোমারই দলে’। প্রকৃতিকে গভীরভাবে ভালোবাসতেন বলেই হয়তো কবি সেদিন ঝরা পাতার কান্না শুনতে পেয়েছিলেন, জানিয়েছিলেন সমবেদনা।

মার্চ ৭, ২০২১ ৮:৫৮ পূর্বাহ্ণ

  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে প্রাকৃতিক এই সৌন্দয্য রক্ষা এবং সংরক্ষণের কোনো বিকল্প নেই। তাই আসুন আমরা এ প্রাকৃতিক এই সৌন্দয্য রক্ষা এবং সংরক্ষণ রাখি।

 

সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে পাখির কিচিরমিচির শব্দ কার না মন ছুঁয়ে যায়! হঠাৎ এ দুটি পাখিকে গাছের নিচে দেখতে পেয়ে মনটা আনন্দে ভরে গেল। ছবি না তুলে পারলাম না। একসময় আমাদের চারপাশে বিভিন্ন প্রজাতির পাখির দেখা মিললেও, এখন অনেক পাখি বিলুপ্তির পথে, যা আমাদের জন্য একটি অশনিসংকেত। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে পাখি সংরক্ষণের কোনো বিকল্প নেই। তাই আসুন, আমাদের জন্যই পাখি রক্ষা করি।

 

বসন্ত এসে গেছে। আজ বসন্তের গোধূলিলগ্নে ও সূর্যের সঙ্গে সাদাকালো আকাশটার মেলবন্ধন উপভোগ করার মতো!

 

বসন্তের ম–ম গন্ধে মাতাল করে জাম্বুরার টক–মিষ্টি ঘ্রাণের ফুলেরা।

 

প্রকৃতি সেজেছে তার আপন রূপে। পলাশ ফুল জানান দিচ্ছে বসন্তের আগমনের।

 

গমের খেতে পাক এসেছে। মনে হচ্ছে মাঠে সোনা ফলেছে, যা দেখে আশায় বুক বাঁধছেন কৃষক। প্রমাদ গুনছেন ফসল কাটার।

 

করোনা মহামারিতে সবকিছু থেমে থাকলেও বসন্ত থেমে নেই। বসন্ত যেন আপন গতিতে চলমান থেকে হাজারো ফুলের সৌরভে সুরভিত করেছে বাংলার প্রকৃতিকে। হাজার ফুলের মধ্যে তেমনি ফলের রাজা, আমের মুকুলের ঘ্রাণেও সুরভিত হয়েছে বাংলাদেশ। এখন শুধু পরিপক্ক ফলের অপেক্ষা

 

Comments are closed.