উপহারের সেই মাইক্রোবাসটি দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স করে সাধারণ মানুষকে সেবা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হিরো আলম

লেখক: Md Emon
প্রকাশ: ৭ মাস আগে
সংগৃহীত

অনলাইন ডেক্স

শিক্ষকের কাছ থেকে উপহার পাওয়া সেই মাইক্রোবাসটি অ্যাম্বুলেন্সে রূপান্তর করে ‘অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস’ চালু করেছেন হিরো আলম। শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকালে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। হিরো আলম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এই সার্ভিস দেওয়া হচ্ছে। আগামীতে আরও দুটি গাড়ি পাওয়ার কথা রয়েছে। গাড়ি পেলে সেই দুটিও অ্যাম্বুলেন্স করে সাধারণ মানুষকে সেবা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন হিরো আলম।

হিরো আলম এ সময় গাড়ির চাবি হস্তান্তর করে বলেন, হবিগঞ্জের শিক্ষক এম মুখলিছুর রহমান এই গাড়িটি আমাকে দিয়েছিলেন। এই উপহার গ্রহণ করে আমি বলেছিলাম, উপহারের গাড়িটি আমি নিজে ব্যবহার করব না। অনেক অসহায় দুস্থ মানুষ আছেন, যারা দুর্ঘটনা কিংবা জরুরি রোগে আক্রান্ত হয়ে অ্যাম্বুলেন্সে হাসপাতালে যেতে পারেন না। তাই এই গাড়িটিকে অ্যাম্বুলেন্স বানিয়ে মানুষের কল্যাণে ব্যবহার করা হবে। সেই অনুযায়ী গত কয়েক মাস ধরে গাড়িটিকে অ্যাম্বুলেন্স বানিয়ে উদ্বোধন করা হলো।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হিরো আলম বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি অংশগ্রহণ করবো। তবে এখন আর স্বতন্ত্রভাবে নয়, দলীয়ভাবে নির্বাচনে প্রার্থী হবো। তবে কোনো দল থেকে এবং বগুড়ার কোনো আসন থেকে নির্বাচন করবো তা পরে জানানো হবে। রাষ্ট্রপতি হবো বলে যারা প্রচারণা চালাচ্ছে তারা গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। নির্বাচনসহ বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে অ্যাম্বুলেন্স কার্যক্রম শুরু করতে দেরি হয়েছে। আজ থেকে কার্যক্রম শুরু হলো। এটি বগুড়া সদর, কাহালু ও নন্দীগ্রামের জনগণ বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবে। আরও দুইটি অ্যাম্বুলেন্স পাওয়ার কথা রয়েছে। সেটিও জনগণের সেবায় বিলিয়ে দেব।

বগুড়া সদরের এরুলিয়ায় তার বাড়ির সামনে শনিবার বিকাল ৫টায় অ্যাম্বুলেন্স কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে ছোট একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেখানে স্থানীয় লোকজন ছাড়া বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মী এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বগুড়া-৬ (সদর) ও বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন হিরো আলম। সেই নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে আলোচনায় আসেন হিরো আলম।

পথিক নিউজ/ মো:ইমন