চার দফা দাবিতে ম্যাটস শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

লেখক: Md Emon
প্রকাশ: ৬ মাস আগে
সংগৃহীত

অনলাইন ডেক্স

অ্যালাইড হেলথ বোর্ড বাতিল ও ‘মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড অব বাংলাদেশ’ নামে স্বতন্ত্র বোর্ড গঠনসহ চার দফা দাবিতে রংপুরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে মেডিকেল অ্যাসিসট্যান্ট ট্রেনিং স্কুলের (ম্যাটস) শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধন থেকে সারাদেশের ৫০ হাজারেরও বেশি ম্যাটস শিক্ষার্থীদের দাবি বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়। দাবি আদায় না হলে আগামীতে লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন তারা।

রোববার (২৭ আগস্ট) দুপুর ১২টায় রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে সড়কে অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা তাদের চার দফা দাবি তুলে ধরে অবিলম্বে তা বাস্তবায়নে সরকার প্রধানসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো-  ইন্টার্নশিপ বহাল রেখে কোর্স কারিকুলাম সংশোধন, অ্যালাইড হেলথ বোর্ড বাতিল করে ‘মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড অব বাংলাদেশ’ নামে স্বতন্ত্র বোর্ড গঠন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও অবিলম্বে নিয়োগদান এবং বঙ্গবন্ধুর পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী উচ্চশিক্ষার সুযোগ প্রদান।

আয়োজকরা জানান, বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর স্বাস্থ্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ডিপ্লোমা মেডিকেল ফ্যাকাল্টি (ডিএমএফ) গঠন করেন। ১৯৭৩ এর পর থেকে এ দেশের প্রান্তিক ও গ্রামীণ পর্যায়ের সাধারণত মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে বিগত ৫০ বছর ধরে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসারগণ। ১৯৭৩ সালের বঙ্গবন্ধুর প্রথম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা অনুযায়ী ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা এই কোর্সের উচ্চ শিক্ষা ও পদোন্নতি কথা থাকলেও গত ৪৮ বছরে তা বাস্তবায়ন হয়নি। বাংলাদেশে এমন আর কোনো ডিপ্লোমা ডিগ্রি নেই যাদের উচ্চ শিক্ষার সুযোগ নেই। কেবল মাত্র ম্যাটস শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে কেন এত বৈষম্য? সরকারি ১২টিসহ সারাদেশে ২৫০টির বেশি ম্যাটস রয়েছে। প্রতিবছর হাজার হাজার শিক্ষার্থী মাত্র ২২ বছরে তার শিক্ষা জীবনে ইতি টানতে হচ্ছে শুধু কিছু কুচক্রী মহলের কারণে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, যে কোন কারিগরি শিক্ষার প্রাণ হচ্ছে ইন্টার্নশিপ বা হাতে কলমে শেখা। অথচ চিকিৎসা পেশার সঙ্গে সরাসরি সম্পর্ক এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ডিপ্লোমা কোর্স থেকে কীভাবে ইন্টার্নশিপ বাদ দেওয়ার কথা চিন্তা করা যায়? শুধু ক্লাসে বসে ৪ বছর কি শিখবে? কি চিকিৎসা দিবে মানুষকে? প্রশ্ন থেকেই যায়। গত কয়েকযুগ ধরে এসব বিবেচনা করে ম্যাটস শিক্ষার্থীরা বিনা পারিশ্রমিকে এক বছর গাধাখাটুনি দিয়ে ইন্টার্নশিপ করে আসছে। তারপরেও কোর্স কারিকুলাম থেকে ইন্টার্নশিপ বালিতের সিদ্ধান্ত দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করা ছাড়া আর কিছুই নয়। এ দেশের প্রান্তিক জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ডিপ্লোমা চিকিৎসকের বিকল্প নেই। মেধার ভিত্তিতে চিকিৎসা বিজ্ঞানে উচ্চশিক্ষার সুযোগ এ দেশের চিকিৎসা খাতে এক নতুন সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচন করবে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা মেডিকেল স্টুডেন্ট’স অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি তৌফিকুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক  রায়হানুল রাব্বী, রংপুর জেলার সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ পিয়াল, শিক্ষার্থী হাবিবুর রহমান, সজিব মণ্ডল, অনামিকা রহমান, হুমায়রা হানিফ, সৌমিক, আসিফ, হুমায়রা খন্দকার প্রমুখ। কর্মসূচি চলাকালে প্রেসক্লাবের আশেপাশে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করতে দেখা যায়।

এদিকে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালনকালে প্রেসক্লাব চত্বরসহ জাহাজ কোম্পানি মোড়, পায়রা চত্বর ও আশপাশের সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। বেলা ২টা পর্যন্ত চলা মানববন্ধন সমাবেশে প্রাইম ম্যাটস, গ্রীণ ম্যাটস, রংপুর ম্যাটস ও সিটি ম্যাটসসহ বিভিন্ন ম্যাটস’র প্রায় দুই শতাধিকের বেশি শিক্ষার্থী অংশ নেন। এর আগে সকাল এগারোটার দিকে প্রাইম হাসপাতাল সংলগ্ন সড়ক থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে টার্মিনাল রোড, ধাপ চেক পোস্ট সড়ক, কাচারী বাজার, সিটি বাজার সড়কসহ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিক্ষার্থীরা।

সূত্র: ঢাকা পোষ্ট

পথিক নিউজ/ মো:ইমন