চিনির দাম এক টাকাও বাড়বে না: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

লেখক:
প্রকাশ: ১ মাস আগে

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেছেন, এস আলমের কারখানায় অগ্নিকাণ্ড বা অন্য কোনো কারণে বাজারে চিনির সংকট হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। আমি ব্যবসায়ীদের বলছি, তারা যেন সংকটের অপচেষ্টা না করেন।

 

তিনি বলেন, পত্র-পত্রিকায় আমি দেখছি দু-এক জায়গায় চিনির দাম বাড়ানোর অচেষ্টা হচ্ছে, বিক্রেতারা কেউ যেন সেটা না করেন। কারণ মিলগেটেও চিনির দাম এক টাকাও বাড়বে না। দেশের সংশ্লিষ্ট উৎপাদনকারীরা কিন্তু বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে এ প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

 

বিজ্ঞাপন

 

আরও পড়ুন >> ঘোষণার পরদিনই চিনির বাড়তি দাম বাতিল করলো টিসিবি

 

বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) পবিত্র রমজান উপলক্ষে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) দ্বিতীয় পর্বের পণ্য বিক্রির কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের তিব্বত মোড়ের পূর্ব কলোনি বাজার সংলগ্ন পলিটেকনিক মাঠে এ উদ্বোধন অনুষ্ঠান হয়।

 

বিজ্ঞাপন

 

চিনির দাম এক টাকাও বাড়বে না: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

 

এ সময় বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা কখনই চাই না পুলিশ-আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে বাজারের সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট করতে। বাজারে যদি সাধারণ গতি থাকে, সুষ্ঠুভাবে চলে, আমি বিশ্বাস করি বাজারে ন্যায্যমূল্যে পণ্য পাওয়া যাবে। আমরা সেই চেষ্টাই করছি। তবে সেটা না হলে আমরা সব ধরনের কঠোর পদক্ষেপ নেবো। এই রমজানে বাজার স্থিতিশীল রাখতে হবে।

 

আরও পড়ুন >> রোজায় ১৫০ টাকায় খেজুর, ৩০ টাকায় চাল বিক্রি করবে টিসিবি

 

বিজ্ঞাপন

 

আহসানুল ইসলাম বলেন, কিছু সুবিধাভোগী লোক আছে যারা সবসময় বাজার ব্যবস্থাপনা ত্রুটিগুলোকে অজুহাত বানিয়ে মুনাফা করতে চায়। আমরা চেষ্টা করছি তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে।

 

চিনির দাম এক টাকাও বাড়বে না: বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

 

অন্যদিকে অনুষ্ঠানে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জানান, শিগগিরি নতুন করে টিসিবি ডিজিটাল ফ্যামিলি কার্ড বিতরণ শুরু করা হবে। ফ্যামিলি কাডধারীরা অনেকে মারা গেছেন, অনেকে এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন- এমন কিছু বিষয় রয়েছে। যে কারণে নতুন করে টিসিবির ডিজিটাল কার্ড হালনাগাদ করা হচ্ছে। আমরা সব এমপি, ডিসি ও অন্য প্রতিনিধিদের নির্দেশ দিয়েছি এ তালিকা শিগগির দেওয়ার জন্য।

 

বিজ্ঞাপন

 

আরও পড়ুন >> ৪২৪ কোটি টাকার তেল-ডাল-গম কিনছে সরকার

 

তিনি আরও বলেন, টিসিবির পণ্য কিনতে অনেকের সারাদিনের কাজ নষ্ট হয়, দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হয়। আমরা প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় ডিলারদের নির্দিষ্ট দোকান করার চেষ্টা করছি। যেখান থেকে মানুষ নিজের সুবিধামতো সময়ে পণ্য কিনতে পারবেন।

ইমি/পথিক নিউজ