নীল ছবি আর বর্তমান যুব সমাজ

লেখক:
প্রকাশ: ১১ মাস আগে

আনজুম রুহী: সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে এখন এমন সব ভিডিও সামনে আসে যা একা দেখলেই বিবরতবোধ করতে হয়।  এসব ‘যৌন উত্তেজনা’ মূলক ভিডিও গুলোতে আরো লেখা থাকে, “শেষ পর্যন্ত না দেখলে চরম মিস করবেন”।

“যেন আপনাকে ঠাকুরমার

ঝুলির রুপকথার গল্প শুনানো হচ্ছে, শেষটা শুনতে হবে কারণ পক্ষীরাজ ঘোড়ায় চড়ে রাজকুমার আসছে, রাজকুমারীকে দৈত্যের হাত থেকে বাঁচাতে।”

প্রযুক্তি এসব নষ্টামি গুলো ফলাও করে প্রচারের সুযোগ হাতের নাগালে করে না দিলে, ধর্ষন আজ এতোটাও সহজ হতো না।

কিছু হরমোনাল বৈশিষ্ট্যের কারণেই ছেলেদের জৈবিক চাহিদা বেশি থাকে, তারা যখন এসব কুরুচিকর ভিডিও দেখে তখন তারা হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে যায়। 

তখন সে ভুলে যায় একটা যুবতীমেয়ে আর বাচ্চামেয়ের মধ্যকার পার্থক্য, তখন সে মরিয়া হয়ে মাধ্যম খুঁজে তার জৈবিক চাহিদা মেটানোর জন্য।

হোক সে মাধ্যমটা কোনো  কোলের শিশু, হোক সে কোনো বাবা-মার আদরের দুলালি, হোক সে কোনো প্রতিবন্ধী বা কোন পাগলী..!!

স্কুল-কলেজ পড়ুয়া একটা মেয়ে যতক্ষণ বাড়ী ফিরে না আসে, ততক্ষণ আমরা আতঙ্কে থাকি।

যেই বাস ড্রাইভার, কন্ডাকটর, আমাদের মেয়েদের গন্তব্য পৌছে দিতো আজ তারা আমাদের মেয়েদের কবরে পৌছে দিচ্ছে।

পরকালে আমাদের এই প্রজন্মকে কি মুখ দেখাবো???

সরকার ও প্রশাসনের কাছে আমার অনুরোধ, “প্রযুক্তির মাধ্যমে সমাজে যে ‘বিকৃত যৌনতা’ ছড়াচ্ছে আগে সেটা বন্ধ করুন।

শুধু জেল ভারী করে কি লাভ  ধর্ষকের সাজা হোক মৃত্যুদন্ড।

“কিছুদিন আগে সৌদি আরবে, একটা মেয়েকে ধর্ষণ করায় পাঁচজনকে প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়।”

আমাদের আইনে সৌদি আরবের মত, প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় না। তাই বলে কি ধর্ষণ অপ্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার মতোও অপরাধ না???

কিছু ধর্ষকের লাশ যাক না তার গ্রামে, কিছু ধর্ষকের লাশ যাক না তার এলাকায়, কিছু ধর্ষকের লাশ যাক না তার পরিবারের প্রিয়জনদের কাছে। সেই লাশগুলো দেখে আতঙ্কিত হউক একটি মহল্লা, একটি এলাকা, একটি গ্রাম..!

এভাবে করেই হয়ত ধীরে-ধীরে ভয় পাবে গোটা একটি সমাজ, তারপর  গোটা দেশ।

যেমন একদিন ভয় পেয়ে, এসিড নিক্ষেপকারী সমাজ থেকে নির্মূল হয়ে গিয়েছিলো, তেমনি ভয় পেয়ে একদিন সমাজ থেকে ধর্ষণকারীও নির্মূল হয়ে যাবে।

আমরা বাঙালিজাতি সব পারি, নয় মাস যুদ্ধ করে দেশকে শত্রুমুক্ত করে স্বাধীনতা আনতে পারি, কোটা বাতিল করতে পারি।

তাহলে কেন সমাজকে, দেশকে ধর্ষকমুক্ত করতে পারবোনা??? সরকার ও প্রশাসন সোচ্চার হয়ে এগিয়ে এলে কেন পারবোনা..