তরুণদের মধ্যে কেন বাড়ছে কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি

লেখক:
প্রকাশ: ১ মাস আগে

কিডনির বিভিন্ন সমস্যা হওয়ার পেছনে দায়ী ঠিকমতো পানি পান না করা কিংবা শরীরে পানির ঘাটতি থাকা। বর্তমানে অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, অনিয়মিত খাওয়াদাওয়া, ভাজাভুজি খাওয়ার প্রবণতাসহ শরীরের প্রতি অবহেলার প্রভাব পড়ে কিডনির উপরে। সে কারণে সাবধানে থাকতে বলেন চিকিৎসকরা।

 

সাধারণত কিডনির সমস্যা হচ্ছে কি না, তা বুঝতে শরীরের চাহিদা অনুযায়ী পানি পানের পরিমাণ ঠিক আছে কি না। কিংবা কোমর বা তলপেটে কোনো ব্যথা হচ্ছে কি না, মূত্রত্যাগের সময়ে জ্বালা হচ্ছে কি না এসব লক্ষণের= দিকেই মূলত নজর রাখতে বলেন চিকিৎসকরা।

 

বিজ্ঞাপন

 

২০২৩ সালে একটি গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে,এই মুহূর্তে তরুণদের সবচেয়ে বড় সমস্যা হল কিডনি সংক্রান্ত। ২০০৩-২০১৩ সাল পর্যন্ত কিডনি সংক্রান্ত রোগে মৃত্যুর হার বেড়েছে প্রায় ৫০ শতাংশ। ২০-৩০ বছর বয়সীরা ভুগছেন কিডনিতে পাথর জমার সমস্যায়।

 

আরও পড়ুন:

 

 

কিডনির সমস্যা বাড়ছে কেন?

 

চিকিৎসকদের মতে, মূলত জীবনযাত্রায় আমূল পরিবর্তনের কারণেই কিডনি সংক্রান্ত জটিলতা বাড়ছে। তা ছাড়া পর্যাপ্ত পানি পান না করা, প্রক্রিয়াজাত খাবারের প্রতি ঝোঁক ও শরীরচর্চায় অবহেলা থেকেও এই সমস্যা বাড়তে পারে। তবে কিডনিতে পাথর জমার পারিবারিক ইতিহাস থাকলেও তা পরবর্তী প্রজন্মের মধ্যে সঞ্চারিত হতে পারে।

 

বিজ্ঞাপন

 

এর থেকে মুক্তির উপায় কী?

 

নিয়মিত সাইট্রাসজাতীয় ফল, সবুজ শাকসবজি ও পর্যাপ্ত পানি পান করলে খেলে কিডনিতে পাথর জমার ভয় অনেকটাই কমে। বারবার মূত্রনালিতে সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনাও নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে।

কিডনির পাথরের সঙ্গে কিন্তু অ্যালকোহল-জাতীয় পানীয়ের সম্পর্ক আছে। তাই মদ্যপান নিয়ন্ত্রণের বাইরে না গেলেই ভালো। পাশাপাশি দেহের ওজন যাতে না বাড়ে, সে দিকেও খেয়াল রাখা উচিত।

 

বিজ্ঞাপন

 

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

ইমি/পথিক নিউজ